30 Minutes Math

30 Minutes Math

You may also like

Fact beast
Fact beast
Lemonade4U
Lemonade4U

Wish you Wealth

Operating as usual

23/10/2023

Its exam time

23/10/2023

এসএসসি নির্বাচনী পরীক্ষা

23/10/2023

কেমন আছো সবাই

18/10/2023

Conditional sentence বা If Clause কাকে বলে? এটি কত প্রকার ও কি কি?

Conditional sentence কি?
একটি Conditional sentence এ দু’টি clause থাকে: নির্ভরশীল clause টি দ্বারা শর্ত বোঝায় এবং প্রধান clause দ্বারা টি প্রেক্ষাপট বোঝায়। এদেরকে if clausesও বলা হয়।

Conditional sentence এর প্রকারভেদ
Conditional Sentence সাধারণত চার প্রকার।
যথাঃ

The Zero Conditionals
The First Conditionals
The Second Conditionals and
The Third Conditionals

1. The Zero Conditionals
একটি zero conditional sentence দুটি present simple verbs/tenses নিয়ে গঠিত হয় (একটি ‘if clause’ এবং অপরটি “মূল clause’) ।

Zero Conditional Sentence সাধারণ সত্য এবং অভ্যাস বোঝাতে ব্যবহৃত হয়। এটা তখনও ব্যবহৃত হয় যখন ফলাফলটি সবসময়ই হবে।

Structure:

If + present simple . . . . . + present simple.

Examples:

If it rains, water rises in the pond.
If you heat water, it boils.
If you push the button, it lights up.

2. The First Conditional
First Conditional এ সাধারণত ‘if’-এর পরে একটি present simple tense এবং তারপর একটি future simple clause থাকে। এই রকম conditional সাধারণত ভবিষ্যতে হতে পারে এমনকিছু বোঝাতে ব্যবহৃত হয় কিন্তু পুরোপুরি নিশ্চিত নয়। এটা সম্ভাব্য ঘটনা বর্ণনা করে।

Structure:

if + present simple, ........will + infinitive

Example:

If it rains today, I’ll not go to the market.
If I’ve enough money, I’ll help the poor.
If you don’t leave soon, you’ll miss the train.
3. The Second Conditional
After ‘if’ it uses the simple past tense, and then ‘would’ and the infinitive.

Second Conditional এ ‘if’-এর পর past simple tense ব্যবহার করা হয় এবং তারপর ‘would’ এবং infinitive ব্যবহার করা হয়।

Structure:

if + past simple, ........would + infinitive

আনুষ্ঠানিক লেখায় I/he/she-এর সাথে ‘was’-এর পরিবর্তে ‘were’ ব্যবহার করতে হবে। Second Conditional এর দুটি ব্যবহার আছে:

(In formal writing, you must use ‘were’ instead of ‘was’ with I/he/she. It has two uses)

1. This structure can be used to talk about things in the future that are probably not going to be true. It is as like an imagination.

Second Conditional সাধারণত ভবিষ্যতের কোন ঘটনা বোঝাতে ব্যবহৃত হয় যা সত্য হবার কোন সম্ভাবনা নেই। “হতে পারতো কিন্তু আসলে হয়নি” অর্থ প্রদান করে এই conditional গুলো।

Example:

If I won the lottery, I would help the poor.
If I met the prime minister, I would hug her.
If he worked hard, he would shine in life.
2. This structure also can be used to talk about something in the present that is impossible as it is not true.

Second Conditional এর structure বর্তমানের কোন ঘটনা যা অসম্ভব বা সত্য নয় তা বোঝাতেও ব্যবহৃত হতে পারে। যেমন:

Example:

If I had his address, I would go to meet him.
If I were You, I would never go out with him.
If I had a plane, I would travel the whole world.

4. The Third Conditional:
Third Conditional এ ‘if’-এর পর past perfect tense এবং তারপর ‘would have’ এবং sentence-এর দ্বিতীয় অংশে past participle ব্যবহার করে।

Structure:

if + past perfect, ........would + have + past participle

It talks about the past and describes a situation that didn’t happen, and imagine the result of the situation.

Third Conditional সাধারণত অতীত সম্পর্কে কথা বলে এবং এমন একটি ঘটনা বর্ণনা করে যা ঘটেনি এবং ঘটনাটির ফলাফল কল্পনা করে।

Example:

If I had been in your position, I would not have gone there.
If you had driven fast, you wouldn’t have missed the meeting.
If he had left the place, he would have bought the palace.

18/10/2023

"Write a letter to your mother describing your hostel life"

19 June 2020

Dhaka

My dear mother,

At first, take my salam. Hope you are well. I am well too. Now I am writing to you about my experience of hostel life. You will be very happy to learn that our college hostel offers a good educational environment for the students. Now I am leading a new life here. All sorts of facilities we get here. We have to follow some rules and regulations provided by hostel authorities. We have a well-decorated dining room. We take our meals here, We have a common room, a library, a prayer room and a canteen in our hostel. There are necessary books in the hostel library. We are passing our leisure time by reading newspapers and magazines, playing indoor games and watching TV in the hostel common room. Our hostel super is a very good man and takes every care of us. Above all, I am keeping fine here Don’t worry about me.

No more today. Convey my salam to my father and love to youngers.

Your loving daughter

Sohana Islam

10/10/2023

ব্যাক-বেঞ্চারদের সবচেয়ে বড়ো অবদান হলো ক্লাসকে আনন্দময় করে তোলা!
তোমাদের মতামত কী?

09/10/2023

আমাকে যখন শিক্ষক দিবস উপলক্ষে ভাষন দিতে বলা হয়

05/10/2023

নবম ও দশম শ্রেনীর রসায়ন
অধ্যায় ৬

প্রশ্ন -৪ : নিচের উদ্দীপকটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
১০gm ম্যাগনেসিয়ামকে ৫gm অক্সিজেনের সাথে মিশিয়ে উত্তপ্ত করা হলো। এতে প্রত্যাশিত উৎপাদ (১৫gm) পাওয়া গেল না।
ক. বিøচিং পাউডারের সংকেত লেখ। ১
খ. মৃৎক্ষার ধাতু বলতে কী বোঝায়? ২
গ. উদ্দীপকে ব্যবহৃত অক্সিজেনের অণু সংখ্যা নির্ণয় কর। ৩
ঘ. উদ্দীপকের বিক্রিয়ায় প্রত্যাশিত উৎপাদ তৈরি না হওয়ার কারণ বিশ্লেষণ কর। ৪
⇔ ৪নং প্রশ্নের উত্তর ⇔
ক. বিøচিং পাউডারের সংকেত Ca(OCl)Cl।
খ. পর্যায় সারণির গ্রæপ -২ এ অবস্থিত ইব থেকে শুরু করে জধ পর্যন্ত মৌলসমূহকে মৃৎক্ষার ধাতু (alkaline earth metal) বলা হয়। এদের ধর্ম অনেকটা ক্ষার ধাতুর ন্যায়।
মৃৎক্ষার ধাতুসমূহ সর্ববহিঃস্থ শক্তিস্তরের ২টি ইলেকট্রন অধাতুকে প্রদান করে আয়নিক যৌগ তৈরি করে। এদের অক্সাইডসমূহ পানিতে ক্ষারীয় দ্রবণ তৈরি করে। এই মৌলসমূহ বিভিন্ন যৌগ হিসেবে মাটিতে থাকে। এদের ধর্ম অনেকটা ক্ষার ধাতুর ন্যায়।
গ. উদ্দীপকে ৫ গ্রাম অক্সিজেন ব্যবহৃত হয়েছে।
আমরা জানি, অক্সিজেনের আণবিক ভর = ৩২gm
∴ ১ mole O2 = ৩২gm
আমরা জানি, কোনো পদার্থের এক মোলে ৬.০২ × ১০২৩ টি
অণু বা পরমাণু থাকে।
৩২gm অক্সিজেনের অণুর সংখ্যা ৬.০২ × ১০২৩ টি
∴ ৫gm ” ” ” (৬.০২ × ১০২৩ × ৫)÷৩২ টি
= ৯.৪১ × ১০২২ টি
∴ উদ্দীপকে ব্যবহৃত অক্সিজেনের অণুর সংখ্যা ৯.৪১ × ১০২২ টি।

ঘ. উদ্দীপকে সংঘটিত রাসায়নিক বিক্রিয়াটি হলো-
২Mg(s) + O2(g) → ২MgO(s)
১mol ম্যাগনেসিয়াম = ২৪gm ম্যাগনেসিয়াম
∴ ১০gm ম্যাগনেসিয়াম = (১ × ১০)/২৪ = ০.৪২ mol ম্যাগনেসিয়াম
আবার, ১mol অক্সিজেন = ৩২gm অক্সিজেন
∴ ৫gm অক্সিজেন = (১ × ৫)/৩২ = ০.১৫৬mol অক্সিজেন
উদ্দীপকের বিক্রিয়াটিতে ১mol অক্সিজেনের সাথে ২molMgO করে।
∴ ০.৪২mol ম্যাগনেসিয়ামের জন্য (০.৪২ ÷ ২) = ০.২১mol অক্সিজেন প্রয়োজন। কিন্তু এখানে মোট অক্সিজেনের পরিমাণ ০.১৫৬mol। অক্সিজেন তাই এখানে লিমিটিং বিক্রিয়ক। যেহেতু , বিক্রিয়ানুসারে ১ মোল অক্সিজেন থেকে ২ মোল ম্যাগনেসিয়াম অক্সাইড উৎপন্ন হয়। তাই অক্সিজেন এর মোলের দ্বিগুণ MgO-এর মোল হবে।
∴ MgO-এর মোলসংখ্যা = ০.৩১২ মোল = (২ × ০.১৫৬) মোল
আমরা জানি, MgO-এর এক মোল = ৪০gm
∴ MgO-এর ০.৪২ মোলের ভর = (৪০ × ০.৩১২) gm
= ১২.৪৮gm
এজন্য, প্রত্যাশিত ১৫gm MgO-এর স্থলে ১২.৪৮gm MgO উৎপন্ন হবে।
অতএব, অক্সিজেন লিমিটিং বিক্রিয়ক হওয়ায় বিক্রিয়ায় প্রত্যাশিত উৎপাদ তৈরি হয় না।

05/10/2023

নবম ও দশম শ্রেনীর রসায়ন
৬ষ্ঠ অধ্যায়

প্রশ্ন -৭ : নিম্নে একটি যৌগের শতকরা সংযুতি দেয়া হলো :
C = ৪০%, H = ৬.৬৭%, O= ৫৩.৩৩% এবং আণবিক ভর = ১৮০
ক. সংযুতি কাকে বলে? ১
খ. মৌলের যোজ্যতা বলতে কী বোঝ? ২
গ. উদ্দীপকের উল্লিখিত মৌলগুলোর শতকরা সংযুতি থেকে যৌগটির আণবিক সংকেত নির্ণয় কর। ৩
ঘ. উদ্দীপকের উল্লিখিত যৌগের শতকরা সংযুতি থেকে স্থুল সংকেত নির্ণয়ের নিয়মগুলো বিশ্লেষণ কর। ৪
⇔ ৭নং প্রশ্নের উত্তর ⇔
ক. যৌগের মোট ভরের মধ্যে কোনো নির্দিষ্ট মৌলের শতকরা ভরকে তার সংযুতি বলে।
খ. কোনো মৌলের ইলেকট্রন বিন্যাসে সর্বশেষ কক্ষপথে যত সংখ্যক ইলেকট্রন থাকে অথবা যত সংখ্যক বেজোড় ইলেকট্রন থাকে তাকে মৌলের যোজনী বা যোজ্যতা বলে। ধাতব মৌলের ক্ষেত্রে সর্বশেষ কক্ষপথের ইলেকট্রন সংখ্যা এবং অধাতব মৌলের ক্ষেত্রে সর্বশেষ কক্ষপথের বেজোড় ইলেকট্রন সংখ্যা মৌলের যোজ্যতা নির্দেশ করে।
অর্থাৎ যোজ্যতা মূলত কোনো মৌলের অন্য মৌলের সাথে যুক্ত হওয়ার সামর্থ্য বা ক্ষমতা।
গ. C, H ও O এর পারমাণবিক সংখ্যা যথাক্রমে ১২, ১ ও ১৬ সুতরাং

C পরমাণুর মোল সংখ্যা = ৪০÷১২ = ৩.৩৩
H পরমাণুর মোল সংখ্যা = ৬.৬÷১ = ৬.৬৭
O পরমাণুর মোল সংখ্যা = ৫৩.৩৩÷১৬ = ৩.৩৩
প্রাপ্ত ভাগফলগুলোকে এদের ক্ষুদ্রতম সংখ্যা অর্থাৎ ৩.৩৩ দ্বারা ভাগ করে-
C = ৩.৩৩÷৩.৩৩ = ১, H = ৬.৬৭÷৩.৩৩ = ২, O = ৩.৩৩÷৩.৩৩ = ১
সুতরাং গ্লুকোজ C, H এবং O পরমাণুর সংখ্যার অনুপাত
= ১: ২ : ১
অতএব, গ্লুকোজের স্থুল সংকেত বা সরল সংকেত = C1H2O1
= CH2O
গ্লুকোজের আণবিক সংকেত (CH2O)n হবে। যদি গ্লুকোজের আণবিক ভর ১৮০ হয়, তবে
(CH2O এর আণবিক ভর)n = ১৮০
বা, (১২ + ১ × ২ + ১৬)n = ১৮০
বা, n = ৬
সুতরাং, গ্লুকোজের আণবিক সংকেত = (CH2O)৬ = C6H12O6
ঘ. উদ্দীপকের উল্লিখিত যৌগের শতকরা সংযুতি থেকে স্থুল সংকেত নির্ণয়ের নিয়মগুলো হলো :
১. মৌলসমূহের শতকরা পরিমাণকে নিজ নিজ পারমাণবিক ভর দ্বারা ভাগ করে যৌগের অণুতে বিদ্যমান মৌলসমূহের মোল সংখ্যার অনুপাত বের করা হয়।
২. এ ভাগফলসমূহ যদি সরল ও পূর্ণ সংখ্যার না হয় তবে তাদেরকে তাদের মধ্যস্থিত ক্ষুদ্রতম সংখ্যা দ্বারা ভাগ করে মৌলসমূহের পরমাণু সংখ্যার অনুপাত বের করা হয়।
৩. দ্বিতীয় ভাগফলগুলো যদি পূর্ণসংখ্যা না হয়, তবে সুবিধাজনক ক্ষুদ্রতম সংখ্যা দ্বারা এদের প্রত্যেককে গুণ করে পূর্ণসংখ্যায় রূপান্তরিত করতে হবে। যদি কোনো ভাগফল বা গুণফল পূর্ণসংখ্যার কাছাকাছি হয়, তবে তার নিকটতম পূর্ণসংখ্যাকে গ্রহণ করতে হবে। এ পূর্ণসংখ্যাসমূহ হচ্ছে যৌগের স্থুলসংকেতে বিদ্যমান মৌলসমূহের স্ব স্ব পরমাণু সংখ্যার অনুপাত।

19/09/2023

প্রশ্ন -১ : নিচের সমীকরণটি লক্ষ কর এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
তাপমাত্রা বাড়ালে ব্যাপনের হার বাড়ে
ক অবস্থা খ অবস্থা গ অবস্থা
ক. সিএনজি কী? ১
খ. তাপমাত্রা বাড়ালে ব্যাপনের হার বাড়ে কেন? ২
গ. উদ্দীপকের ক, খ ও গ এ তিন অবস্থায় পদার্থের গতিশীলতা ব্যাখ্যা কর। ৩
ঘ. উদ্দীপকের বিভিন্ন অবস্থায় তাপ প্রদানের বক্ররেখা এঁকে এর অবস্থাসমূহ ব্যাখ্যা কর। ৪
 ৬নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. প্রাকৃতিক গ্যাসকে অধিক চাপ প্রয়োগে সংকুচিত করে যে জ্বালানি তৈরি করা হয়, তাকে সি এন জি বলে।
খ. তাপমাত্রা বাড়ালে আন্তঃআণবিক আকর্ষণ বল কমে যায় বলে ব্যাপনের হার বাড়ে।
কোনো বস্তুর ব্যাপনের হার তার আন্তঃআণবিক আকর্ষণ বলের ওপর নির্ভরশীল। তাপমাত্রা কম হলে আন্তঃআণবিক আকর্ষণ বেশি হয় এবং ব্যাপনের হার কম হয়। তাপমাত্রা বাড়ালে বস্তুর আন্তঃকণা আকর্ষণ বল কমে যায় বলে কণাগুলো বেশি করে ছড়িয়ে পড়ে। ফলে তাপমাত্রা বাড়ালে ব্যাপন বৃদ্ধি পায়।
গ. উদ্দীপকের ক নং চিত্রে অণুসমূহ খুব সন্নিকটে অবস্থান করে। তাই ক নং চিত্রটি বরফ (কঠিন)। খ নং চিত্রে অণুসমূহ পরস্পরের থেকে একটু দূরে অবস্থান করে। তাই এটি পানি (তরল)। গ নং চিত্রে অণুসমূহ পরস্পর থেকে অনেক দূরে অবস্থান করে। তাই এটি জলীয়বাষ্প (গ্যাসীয়)।
কণাসমূহ যত তাপ অর্জন করে তাদের গতিশক্তি তত বৃদ্ধি পেতে থাকে, এভাবে গতিশক্তি বৃদ্ধি পাওয়ায় আন্তঃআণবিক দূরত্ব বৃদ্ধি পায় ও আন্তঃআণবিক বল হ্রাস পায়। ফলে পদার্থটি কঠিন থেকে তরল এবং আরো তাপ প্রয়োগে তরল থেকে গ্যাসে পরিণত হয়।
অর্থাৎ কণার গতিশক্তি যত বৃদ্ধি পেতে থাকে পদার্থ তত কঠিন থেকে তরলে এবং তরল থেকে গ্যাসে পরিণত হওয়ার প্রবণতা বাড়তে থাকবে।
ঘ. উদ্দীপকে পানির তিনটি ভৌত অবস্থা দেখানো হয়েছে। ক, খ এবং গ অবস্থা হলো যথাক্রমে কঠিন, তরল এবং গ্যাসীয় অবস্থা। বরফের গলনাঙ্ক 0C ও পানির স্ফুটনাঙ্ক ১০0C । এক্ষেত্রে তাপ প্রদানের বক্ররেখা নিচে অঙ্কিত হলো :

(চিত্রটি ১ম কমেন্টে)

ভৌত অবস্থা
অঙ্কিত বক্ররেখা থেকে দেখা যাচ্ছে যে, ১0C তাপমাত্রার বরফকে তাপ প্রয়োগ করলে তাপমাত্রা বেড়ে তা 0C তাপমাত্রার বরফে (ক) পরিণত হয়। এরপর তাপ প্রদান করলে তাপমাত্রা না বেড়ে অবস্থার পরিবর্তনের জন্য গলনের আপেক্ষিক সুপ্ততাপ গ্রহণ করে 0C তাপমাত্রার বরফ থেকে 0C তাপমাত্রার পানিতে (খ) পরিণত হয়। এরপর আরও তাপ প্রদান করলে পানির তাপমাত্রা বাড়তে থাকে। পানির তাপমাত্রা ১০0C হলে, সেটি বাষ্পীভবনের আপেক্ষিক সুপ্ততাপ গ্রহণ করে ১০0C তাপমাত্রার বাষ্পে (গ) পরিণত হয়। এরপর আরও তাপ প্রদান করলে ১০0C তাপমাত্রার জলীয়বাষ্প থেকে ১২0C তাপমাত্রার জলীয়বাষ্পে পরিণত করা হয়।

12/09/2023
11/09/2023

There lived a farmer in a village. He had a wonderful goose. The goose laid an egg of gold every day. The farmer was very greedy. He thought that there were many eggs in the belly of the goose. He wanted to have all the eggs at a time. Thus, he wished to be rich.

One day he hit upon a plan that he would kill the goose and get all the eggs of gold from its belly. Then he would sell the eggs and become rich at once.

The farmer told his wife about his plan. His wife was wise but not greedy. She said to her husband, “Don’t be greedy. Be happy with what we’ve.”

But the farmer did not listen to his wife. He killed the goose with a sharp knife. Then he cut open its belly. But alas! He found no egg in it. Thus, the greedy farmer lost his useful goose.

10/09/2023

Story: King Solomon

SOLOMON is a teen-ager when he becomes king. He loves Jehovah, and he follows the good advice that his father David gave him. Jehovah is pleased with Solomon, and so one night he says to him in a dream: ‘Solomon, what would you like me to give you?’

At this Solomon answers: ‘Jehovah my God, I am very young and I don’t know how to rule. So give me the wisdom to rule your people in a right way.’

Jehovah is pleased with what Solomon asks. So He says: ‘Because you have asked for wisdom and not for long life or riches, I will give you more wisdom than anyone who has ever lived. But I will also give you what you did not ask for, both riches and glory.’

A short time later two women come to Solomon with a hard problem. ‘This woman and I live in the same house,’ explains one of them. ‘I gave birth to a boy, and two days later she also gave birth to a baby boy. Then one night her baby died. But while I was asleep, she put her dead child next to me and took my baby. When I woke up and looked at the dead child, I saw that it was not mine.’

At this the other woman says: ‘No! The living child is mine, and the dead one is hers!’ The first woman answers: ‘No! The dead child is yours, and the living one is mine!’ This is the way the women argue. What will Solomon do?

He sends for a sword, and, when it is brought, he says: ‘Cut the living baby in two, and give each woman half of it.’

Two women alongside one of Solomon’s men who holds a baby and a sword
‘No!’ cries the real mother. ‘Please don’t kill the baby. Give it to her!’ But the other woman says: ‘Don’t give it to either of us; go on and cut it in two.’

Finally Solomon speaks: ‘Don’t kill the child! Give him to the first woman. She is the real mother.’ Solomon knows this because the real mother loves the baby so much that she is willing to give him to the other woman so he won’t be killed. When the people hear how Solomon solved the problem, they are glad to have such a wise king.

During the rule of Solomon, God blesses the people by making the soil grow plenty of wheat and barley, grapes and figs and other foods. The people wear fine clothes and live in good houses. There is more than enough of everything good for everybody

10/09/2023

নবম/দশম শ্রেণির রসায়ন চতুর্থ অধ্যায় (পর্যায় সারনী)
আজকের বিষয়: অনুধাবন মূলক প্রশ্ন ও উত্তর।

09/09/2023

নবম/দশম শ্রেণির গনিত অনুশীলনী ১৬.২ এর ৩ নং সমাধান (পরিমিতি)

09/09/2023

নবম/দশম শ্রেণির গনিত অনুশীলনী ১৬.২ এর ২ নং সমাধান (পরিমিতি)

09/09/2023

নবম/দশম শ্রেনীর গনিত। অনুশীলনী ১৬.২ এর ১ নং সমাধান (পরিমিতি)।

09/09/2023

I've received 100 reactions to my posts in the past 30 days. Thanks for your support. 🙏🤗🎉

08/09/2023

ঘুরতে গিয়ে

06/09/2023

পরমাণুর গঠন – রসায়ন – ৩য় অধ্যায় – জ্ঞানমূলক ( সংজ্ঞা / কাকে বলে )

১। অনু কাকে বলে? / অণু কাকে বলে?

উত্তর: দুই বা অধিক সংখ্যক পরমাণু পরস্পরের সাথে রাসায়িনক বন্ধন এর মাধ্যমে যুক্ত থাকেল তাকে অনু বলে। আনু মৌলিক বা যৌগিক পদার্থের ক্ষুদ্রতম কণিকা।

২। মৌলিক পদার্থ কাকে বলে?

উত্তর: যে পদার্থ ভাঙ্গলে সেই পদার্থ ছাড়া অন্য একান পদার্থ পাওয়া যায় না তাদেরকে মৌলিক পদার্থ বলে।

৩। যৌগিক পদার্থ কাকে বলে?

উত্তর: যে পদার্থ ভাঙ্গলে দুই বা দুইয়ের অধিক মৌলিক পদার্থ পাওয়া যায় তাকে যৌগিক পদার্থ বলে।

৪। প্রতীক কাকে বলে?

উত্তর: একটি মৌলের ইংরেজি বা ল্যাটিন নামের সংক্ষিপ্ত রূপকে প্রতীক বলে।

৫। সংকেত কাকে বলে?

উত্তর: কোন যৌগ বা মৌলের অণুকে তাদের প্রতীক ও অন্যান্য চিহ্নের সাহায্যে সংক্ষেপে প্রকাশ করার পদ্ধতিকে সংকেত বলে।

৬। মৌলিক কণিকা কাকে বলে?

উত্তর: যে সকল কণিকা দ্বারা পরমাণু গঠিত তাদেরকে মৌলিক কণিকা বলে।

৭। নিউক্লিয়াস কাকে বলে?

উত্তর: পরমাণুর কেন্দ্রস্থলে একিট ধনাত্নক চার্জ বিশিষ্ট ভারী বস্তু বিদ্যমান, এই ভারী বস্তু কে নিউক্লিয়াস বলে।

৮। প্রোটন কাকে বলে?

উত্তর: পরমাণুর কেন্দ্রে অবস্থিত ধনাত্বক চার্জবিশিষ্ট স্থায়ী কণিকাকে প্রোটন বলে।

৯। নিউট্রন কাকে বলে?

উত্তর: পরমাণুর কেন্দ্রে অবস্থিত আধান বিহীন মৌলিক কনিকাকে নিউট্রন বলে।

১০। পারমাণবিক সংখ্যা কি?

উত্তর: কোনো পরমাণুর নিউক্লিয়াসের উপস্থিত প্রোটনের সংখ্যাকে ঐ মৌলের পরমাণবিক সংখ্যা বলে।

১১। ভরসংখ্যা কাকে বলে? / আপেক্ষিক পারমাণবিক ভর কাকে বলে? / ভর সংখ্যা কাকে বলে?

উত্তর: কোন পরমাণুতে উপস্থিত প্রোটন ও নিউট্রন সংখ্যার যোগফলকে ঐ পরমাণুর ভর সংখ্যা বলে।

১২। ইলেকট্রন কাকে বলে?

উত্তর: পরমাণুর নিউক্লিয়াসের চারদিকে বিভিন্ন স্থায়ী কক্ষপথে অবর্তনরত ঘুর্নায়মান ঋনাত্নক চার্জবিশিষ্ট মৌলিক কণিকাকে ইলেকট্রন বলে।

১৩। ইলেকট্রন বিন্যাস কাকে বলে?

উত্তর: নিউক্লিয়াসের চার পাশে বিভিন্ন শক্তিস্তরে, উপশক্তিস্তরে শক্তির ক্রমাণুসারে ইলেকট্রন গুলো যেভাবে সাজানো থাকে তাকে ইলেকট্রন বিন্যাস বলে।

১৪। প্রধান কোয়ান্টাম সংখ্যা কাকে বলে? / প্রধান কোয়ান্টাম সংখ্যা কী?

উত্তর: পরমাণু প্রধান কক্ষপথ বা শক্তিস্তর নির্দেশকারী সংখ্যা বা চিহ্ন সমূহকে প্রধান কোয়ান্টাম সংখ্যা বলে।

১৫। অরবিট কাকে বলে? / শক্তিস্তর কাকে বলে?

উত্তর: পরমাণুর নিউক্লিয়াসের চারিদিকে নির্দিষ্ট ব্যাসার্ধের অনুমোদিত যেসব বৃত্তাকার স্থির কক্ষপথে অবস্থান নিয়ে ইলেকট্রন সমূহ ঘুরতে থাকে তাদেরকে শক্তিস্তর বা অরবিট বলে।

১৬। অরবিটাল কাকে বলে?

উত্তর: পরমাণুর প্রতিটা শক্তিস্তর এক বা একাধিক উপশক্তি নিয়ে গঠিত, এ উপশক্তিগুলোকে অরবিটাল বলে।

১৭। আইসোটোপ কাকে বলে?

উত্তর: যে সকল পরমাণুর প্রোটন সংখ্যা সমান কিন্তু ভরসংখ্যা ও নিউট্রন সংখ্যা ভিন্ন তাদেরকে পরস্পরের আইসোটোপ বলে।

১৮। আপেক্ষিক পারমাণবিক ভর কাকে বলে? / আপেক্ষিক পারমানবিক ভর কাকে বলে?

উত্তর: কোন মৌলের একটি পরমাণুর ভর এবং কার্বন 12 আইসোটোপের 1/12 অংশের ভরের অনুপাতকে আপেক্ষিক পারমাণবিক ভর বলে।

১৯। আপেক্ষিক আণবিক ভর কাকে বলে? / আপেক্ষিক আনবিক ভর কাকে বলে?

উত্তর: কোন পদার্থের অণুতে বিদ্যমান পরমাণু সমূহের আপেক্ষিক পারমাণবিক ভরের সমষ্টিকে আপেক্ষিক আণবিক ভর বলে।

২০। আলফা রাশ্নি কাকে বলে?

উত্তর: তেজস্ক্রিয় পদার্থ থেকে নির্গত ধনাত্নক চার্জ বিশিষ্ট ও স্বল্প ভেদ্যযোগ্যতা বিশিষ্ট রশ্নিকে আলফা রশ্নি বলে।

২১। গামা রশ্নি কাকে বলে?

উত্তর:তেজক্রিয় পদার্থ থেকে নির্গত ভরহীন ও চার্জহীন রশ্নি যার ভেদন যোগ্যতার সবচেয়ে বেশি তাকে গামা রশ্নি বলে।

২২। তেজস্ক্রিয় আইসোটোপ কাকে বলে?

উত্তর: কিছু কিছু আইসোটোপ রয়েছে যাদের নিউক্লিয়াস স্বতঃস্ফূর্তভাবে ভেঙ্গে আলফা, বিটা, গামা ইত্যাদি রশ্মি নির্গত হয় তাকে তেজস্ক্রিয় আইসোটোপ বলে।

২৩। পরমাণু মডেল কাকে বলে?

উত্তর: পরমাণুর গঠন ব্যাখা করার জন্য বিভিন্ন বিজ্ঞানী বিভিন্ন সময়ে যে মতবাদ প্রদান করেন সেগুলোকে পরমাণু মডের বলা হয়।

২৪। পারমাণবিক বর্ণালী কাকে বলে?

উত্তর: ইলেকট্রন উচ্চ শক্তিস্তর থেকে নিম্ন শক্তির স্তরে যাওয়ার সময় যে আলো বিকিরণ করে তাকে প্রিজমের মধ্যে দিয়ে প্রবেশ করালে যে বর্ণালী সৃষ্টি হয় তাকে পরমাণবিক বর্ণালী বলে।

২৫। বিটা রশ্মি কাকে বলে?

উত্তর: তেজস্ক্রিয় পদার্থ থেকে নির্গত ঋনাত্বক আধান বিশিষ্ট ও মাধ্যম ভেদন যোগ্যতা বিশিষ্ট রশ্মি কে বিটা রশ্মি বলে।

২৬। লিউকেমিয়া কাকে বলে? / লিউকেমিয়া কাকে বলে?

উত্তর: রক্তের ক্যান্সারকে লিউকেমিয়া বলে।

২৭। s,p,d,f কী?

উত্তর: পরমাণুর উপশক্তিস্তর সমূহকে s,p,d,f দিয়ে প্রমাণ করা হয়।

২৮। সৌর মডেল কাকে বলে?

উত্তর: বিজ্ঞানী রাদারফোর্ড কর্তৃক প্রদত্ত পরমাণুর গঠনকে সৌর জগতের সাথে তুলনা করে যে গঠন প্রস্তাব করেন তাকে সৌর মডেল বলে।

২৯। রাদারফোর্ডের পরমাণু মডেল কি?

উত্তর: ১৯১১ সালে রাদারফোর্ড কর্তৃক প্রদত্ত পরমাণুর গঠন সম্পর্কিত মডেল যা সৌর মডেল নামে পরিচিত।

৩০। ম্যাক্স ওয়েলের তত্ব কী?

উত্তর: কোন চার্জযুক্ত বস্তুর বা কণা কোন বৃত্তাকার পথে ঘুরতে থাকলে তা ক্রমাগত শক্তির বিকিরণ করবে এবং তার আবর্তন চক্রও ধীরে ধীরে কমতে থাকবে- এটাই ম্যাক্স ওয়েলের তত্ব।

৩১। বোর পরমাণু মডেল কি?

উত্তর: পরমাণু গঠন ও একই সাথে পরমাণবিক বর্ণালী ব্যাখ্যা করার জন্য নীলস বোর (১৯১৩) কর্তৃক প্রস্তাবিত পরমাণু মডেল। এই মডেল থেকে ইলেক্ট্রনের কক্ষপথ ও শক্তিস্তরের ধারণা পাওয়া যায়।

06/09/2023

জ্ঞানমূলক – রসায়ন – ২য় অধ্যায় ( সূত্র / সংজ্ঞা / সংগা / কাকে বলে )

১। পদার্থ কী?

উত্তর: যে বস্তুর ভর আছে এবং জায়গা দখল করে তাকে পদার্থ বলে।

২। আন্তঃআণবিক শক্তি কাকে বলে? / আন্ত: আনবিক শক্তি কাকে বলে? / আন্তঃ আণবিক শক্তি কাকে বলে?

উত্তর: যে শক্তির প্রভাবে পদার্থের অভ্যন্তরস্থ অনুসমূহ পরস্পরকে। আকর্ষণের মাধ্যমে আবদ্ধ করে থাকে,তাকে আন্ত:আনবিক শক্তি বলে।

৩। কনার গতিতত্ত্ব কাকে বলে?

উত্তর: আন্তঃ কনা আকর্ষন শক্তি এবং কনা গুলোর গতিশক্তি দিয়ে পদার্থের কঠিন,তরল ও বায়বীয় অবস্থা ব্যাখা করার তথ্যকে কনার গতিতত্ত্ব বলে।

৪। ব্যাপন কাকে বলে?

উত্তর:কেআন মাধ্যমে কঠিন,তরল বা গ্যাসীয় বস্তুর স্বত:স্ফূর্ত সমভাবে পরিব্যাপ্ত হোয়াকে ব্যাপন বলে।

৫। নিঃসরন কাকে বলে?

উত্তর: সরু ছিদ্রপথে কোন গ্যাসের অনুসমূহের উচ্চচাপ থেকে নিম্নচাপ অঞ্চলে বেরিয়ে আসার প্রক্রিয়াকে নিঃসরণ বলে।

৬। CNG কী?

উত্তর:অধিক চাপে সংকোচিত মিথেন গ্যাসকে CNG বা Compressed Natural Gas বলে।

৭। হাইড্রোকার্বন কী?

উত্তর: হাইড্রোজেন ও কার্বন মেলে গঠিত জৈব যৌগই হলো হাইড্রোকার্বন।

৮। গলনাঙ্ক কাকে বলে?

উত্তর: স্বাভাবিক চাপে (1atm)যে তাপমাত্রা একান কঠিন পদার্থ তরলে পরিণত হয় সেই তাপমাত্রাকে সেই পদার্থের গলানাঙ্ক বলে।(atm=atmosphere বা বায়ু –লীয় চাপ)

৯। স্ফুটন কী?

উত্তর: তাপ প্রয়োগ করে তরল কে গ্যাসে রূপান্তর করার প্রক্রিয়াকে স্ফুটন বলে।

১০। স্ফুনাঙ্ক কাকে বলে?

উত্তর: স্বাভাবিক চাপে (1atm) যে তাপমাত্রায় কোন তরল পদার্থ গ্যাসীয় অবস্থা প্রাপ্ত হয় সেই তাপমাত্রাকে সেই পদার্থের স্ফুটনাঙ্ক বলে।

১১। মোমের গলনাঙ্ক কাকে বলে?

উত্তর: কোন নিদিষ্ট তাপমাত্রায় মোম না গলে তাপমাত্রা কোন একটি পরিসরে মোম গলাতে থাকে এবং তাপমাত্রার এই পরিসংখ্যানই মোমের গলাঙ্ক।

১২। শুষ্ক বরফ কী?

উত্তর: কঠিন কে শুষ্ক বরফ বা dry icc বলা হয়।

১৩। সুপ্ততাপ কাকে বলে?

উত্তর: তাপমাত্রা স্থির রেখে কোন পদার্থকে এক ভৌত অবস্থা হতে অন্য অবস্থায় রূপান্তরিত করতে যে পরিমাণ তাপ প্রয়োজন হয় তাকে সুপ্ততাপ বলে।

১৪। গলন কী?

উত্তর: তাপ প্রয়োগে কোন পদার্থের কঠিন অবস্থা থেকে তরল অবস্থায় রূপান্তর করার প্রক্রিয়াকে গলন বলে।

১৫। সুপার হিটেড ওয়াটার কী?

উত্তর: অধিক চাপে স্ফুটনাঙ্ক( c) ক্রান্তি তাপমাত্রা ( c) মধ্যে অবস্থিত বাষ্পকে সুপার হিটেট সুপার হিটেড ওয়াটার বলে।

১৬। পাতন কাকে বলে?

উত্তর: কোন তরল কে তাপ প্রদানে বাষ্পে পরিনত কের তাকে পুনরায় শীকলকরণের মাধ্যমে তরলে পরিণত করার পদ্বতিকে পাতন বলে।

১৭। বাষ্পীভবন কাকে বলে?

উত্তর:কোন তরল পদার্থকে তাপ প্রদান করে ঐ তরল পদার্থ কে বাষ্পে পরিণত করার প্রক্রিয়াকে বাষ্পিভবন বলে।

১৮। ঘনীভবন কাকে বলে?

উত্তর:কোন তরল পদার্থকে এর বাষ্পীয় অবস্থা থেকে শীতল করে তরল অবস্থায় পরিণত করার প্রক্রিয়াকে ঘনীভবন বলে।

১৯। ঊর্ধ্বপাতন কাকে বলে? / উর্ধ্বপাতন কী?

উত্তর: যে প্রক্রিয়ায় কোন কঠিন পদার্থকে তাপ প্রদান করা হলে সেগুলো তরলে পরিণত না হয়ে সরাসরি বাষ্পে পরিণত হয়, তাকে ঊর্ধ্বপাতন বলে।

05/09/2023

সপ্তম শ্রেনীর গনিত অধ্যায় ২.২

04/09/2023

15 k Follower celebration

04/09/2023

I've just reached 15K followers! Thank you for continuing support. I could never have made it without each one of you. 🙏🤗🎉

04/09/2023

সপ্তম শ্রেনীর গনিত অধ্যায় ২.২
লাভ ক্ষতির চ্যাপ্টার

Want your school to be the top-listed School/college in Mymensingh?

Click here to claim your Sponsored Listing.

Videos (show all)

Its exam time
এসএসসি নির্বাচনী পরীক্ষা
#trendingreels
ঘুম #education #math
নবম/দশম শ্রেণির রসায়ন চতুর্থ অধ্যায় (পর্যায় সারনী)আজকের বিষয়: অনুধাবন মূলক প্রশ্ন ও উত্তর। #education #chemistry #nine #...
নবম/দশম শ্রেণির গনিত অনুশীলনী ১৬.২ এর ৩ নং সমাধান (পরিমিতি) #viral #foryou #education #maths
নবম/দশম শ্রেণির গনিত অনুশীলনী ১৬.২ এর ২ নং সমাধান (পরিমিতি)
নবম/দশম শ্রেনীর গনিত। অনুশীলনী ১৬.২ এর ১ নং সমাধান (পরিমিতি)।#maths #education #foryou #viral
ঘুরতে গিয়ে #viral #foryou #nature

Location

Category

Telephone

Address

Mymensingh
Other Tutors/Teachers in Mymensingh (show all)
বিজ্ঞান কি এতোই সোজা ? বিজ্ঞান কি এতোই সোজা ?
Jamtola Moar, Gafargoan
Mymensingh, 2230

We are ready to guide you properly and try to give you best.

English Teacher, Zohir Sir English Teacher, Zohir Sir
Nizkalpa
Mymensingh, 2200

আমি একজন ইংরেজি শিক্ষক। আমার এই পেইজে ইংরেজি গ্রামার, সাহিত্য ও ভাষা শিখতে পারবেন। পেইজটি ফলো দিন।

Meaning of Math Meaning of Math
Mymensingh, 8001

I want to teach mathematics with fun.

Sojib academic math care programme Sojib academic math care programme
Mymensingh

মৌলিক গণিত আমাদের মূলমন্ত্র

নারী উন্নয়ন কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র নারী উন্নয়ন কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র
Jamtola Mor, Kashor Road, Mymensingh, Sadar, Mymensingh,।
Mymensingh, 2200

কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র

Pharmacology Study Pharmacology Study
Vabokhali Puraton Bazer
Mymensingh, 2200

Hi, I am Ubaidul Islam.I am study at Mats in diploma third year

Ajoy English Link Ajoy English Link
Mymensigh, Dhaka
Mymensingh

English Programmes - > Varsity & Medical Admission English > Job English & HSC English

Jahangir Alam Noman Jahangir Alam Noman
Kochuar Ghat Road, Near Bhati Para Primary School, Parail
Mymensingh, 2200

Lecturer, English Department Bigha Ahmadia Fazil (degree) Madrasah

Azharul's Creativity Azharul's Creativity
Mymansingsh
Mymensingh

This is an educational page where we upload computer related educational videos

Monsur Cadet Academy "Led by Cadet College Ex. Teacher" Monsur Cadet Academy "Led by Cadet College Ex. Teacher"
Mymensingh
Mymensingh, 2200

Abul Monsur Associate Professor (Retired) Mymensingh Girls' Cadet College

Lutfur's teach Inn Lutfur's teach Inn
Muktagacha
Mymensingh, 2210

teaching