Dharampur College

Dharampur College

Official page for online activities of Dharampur College

Operating as usual

Photos from Dharampur College's post 31/01/2023

📝নোটিশ📋

নবীন বরণ অনুষ্ঠান - ২০২৩
তারিখ - ০১/০২/২০২৩
রোজ- বুধবার
সময়- সকাল ১০.০০ টা
স্হান- ধরমপুর কলেজ মিলনায়তন।

উক্ত অনুষ্ঠানে ২০২২-২৩ ও ২০২৩- ২৪ শিক্ষাবর্ষের সকল শিক্ষার্থীদের সঠিক সময়ে উপস্থিত হওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হলো।

নির্দেশনায়-
অধ্যক্ষ, ধরমপুর কলেজ,রাজশাহী।

23/12/2022

ভেবেছিলাম এটা নিয়ে লিখবো না কিন্তু আরো একটা ফোনকলে এতটাই আপ্লুত হলাম যে আবেগ দমিয়ে রাখা গেলো না!
‘হ্যালো ম্যাম আপনি কি ব্যস্ত আছেন?’
‘না, ঠিক আছে বলো’
‘ম্যাম, আপনার এই অপদার্থ স্টুডেন্টের একটা চাকরি হয়েছে!’
ওর কণ্ঠে আনন্দ-উচ্ছ্বাস ঝরে পড়ছিলো! আমিও সাথে সাথে আলহামদুল্লিলাহ বললাম।
বললাম, ‘এখনই দুই রাকাত নফল নামাজ পড়ো। বাবা-মাকে জানিয়েছো?’
ছেলেটা আমাকে অবাক করে দিয়ে বললো, ‘আমি সবার আগে আপনাকে জানালাম, এখন বাড়িতে জানাচ্ছি’।
সে আমার প্রিয় একজন মেধাবি ছাত্র। বেশ কয়েক বছর আগে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইকোনোমিক্সে অনার্সসহ মাস্টার্স পাশ করে বেকারত্বের গ্লানি বয়ে বেড়াচ্ছিলো। বাবা ভূমিহীন কৃষক, প্রাইভেট পড়িয়ে নিজের খরচ চালাতো। আমাকে নিজের মায়ের মতো অকপটে সব বলতো। হতাশার কথা, বাবা-মায়ের কষ্টের কথা। চাকরির চেষ্টা করার চেয়ে বাড়ি এসে অন্যের জমি বর্গা নিয়ে চাষাবাদ করার জন্য পরিবারের চাপের কথা। বিসিএস কোচিংএর পরীক্ষায় ভালো করলেও চূড়ান্ত পর্যায়ে সফল না হতে পারায় মাঝে মাঝে নিজেকে শেষ করে দিতে ইচ্ছা করে এমনও বলেছে! যতটা সম্ভব সাপোর্ট দেয়ার চেষ্টা করেছি, সাহস জুগিয়েছি। আজ ওর খবরে সত্যিই খুব আনন্দ লাগছে!
কয়েকদিন আগে ‘আমি ভীষণরকম শঙ্কিত…’ শিরোনামে একটা পোস্ট দিয়েছিলাম। অনেকেই এটার জন্য আমাকে ইনবক্সে নক করেছে। কেউ ভয় দেখিয়েছে, কেউ উপদেশ দিয়েছে। একজন ম্যাসেঞ্জারে আমার মোবাইল নম্বর চেয়েছিলো, পাত্তা দেইনি। হঠাৎ মনে হলো দেখি তো ছেলেটা কে? প্রোফাইল চেক করলাম। দেখলাম আমার একজন প্রাক্তন ছাত্র। শুনেছিলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হয়েছে। জাপানে পিএইচডি করছে। মোবাইল নম্বর দিলাম। সে ফোন দিয়ে বললো, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা সংক্রান্ত কাজে এসেছে, আমার সাথে দেখা করতে চায়। সন্ধ্যার পর বাসায় এলো। অনেকগুলো মিষ্টি নিয়ে! এতদিন পরে ওর আগমনের সারপ্রাইজে আপ্লুত হলাম। সারা সন্ধ্যা কেটে গেলো জাপানের শিক্ষা, সামাজিক অবস্থা, তাদের নীতি নৈতিকতা, দেশের বর্তমান শিক্ষার হালহকিকত ইত্যাদি নানা বিষয় আলোচনার মধ্যদিয়ে। পরপর দুটো ঘটনায় নিজের শিক্ষক সত্ত্বাকে সার্থক মনে হচ্ছে। খুব ভালো লাগছে। এরা দুইজনেই ধরমপুর কলেজের প্রাক্তন ছাত্র।

23/08/2022

Saddest thoughts and deepest respect...

15/07/2022

একটা কঙ্কাল কিনেছিলাম
হোসনে আরা পারভীন

একদা কিনেছিলাম একটা কঙ্কাল-
তখন ভার্সিটিতে পড়তাম,
যুদ্ধজয়ী ছোটোভাই এমবিবিএস এ ভর্তি হলো,
স্বপ্ন পুরণের খুশি তার চোখে মুখে চমকালো!
ওর প্রয়োজন মানুষের কঙ্কাল একটা
দাম প্রচুর! আর পাওয়াও যাচ্ছে না সেটা।
কলেজ জীবনের সহপাঠীর দ্বারস্থ হলাম শেষে
ও তখন রাজশাহী মেডিকেলে ইন্টার্নি করছে।
একটা পুরাতন কঙ্কাল কিনে দিলো সে,
বললো, ভাইকে ভালো করে পড়তে বলবে।
বড় কালো পলিথিনে হারগোড় ভরে
নিয়ে আসছি সযতনে হাতে করে।
মনে হচ্ছে ফিমার, টিবিয়া, রেডিয়াস
অস্থিগুলো যেন উঠছে নড়েচড়ে।
রিক্সায় বসে ভাবছি-
এটা যার কঙ্কাল একদিন সে তো
ছিলো আমারই মতো,
হাড়গুলো ঢাকা ছিলো মাংস আর চামড়া দিয়ে,
হয়তো বাঁচার স্বপ্ন ছিলো স্নেহ, আদর, ভালোবাসা নিয়ে।
কীভাবে মারা গেলো সে? কোন ধর্ম ছিলো তার?
কেন হয়েছিলো বেওয়ারিশ লাশ!
কোথায় আছে তার পরিবার?
মৃত্যুর পর জোটেনি তার চিতা বা কবর, হয়নি শেষকৃত্য;
এসব আত্মারা নাকি রয়ে যায় অতৃপ্ত!
বাড়ি এসে ব্যাগটা রাখলাম টেবিলে, খাটের পাশে;
রাতে দেখি কঙ্কালটা খটখট শব্দ করে শিয়রে দাঁড়ালো এসে।
বললো মমতা মাখানো সুরে-আমায় নিয়ে এত ভাবছো যে?
কিছু বলার আগেই সে বললো-
জানো, স্যাররা বলেন আমাদের সম্মান দিতে,
কেউ কেউ দেয়, আবার কেউ হ্যাংগার বানায়।
হোস্টেলগুলোতে যেয়ে দেখো একবার
কঙ্কালের কত বহুমুখী ব্যবহার!
তবুও ভালো লাগে,
ওরা আমার একেকটা হাড় নিয়ে
নাম লেখে রঙ্গিন কলম দিয়ে।
এগুলো দেখে পড়াশুনা করে কতজন ডাক্তার হচ্ছে,
তারা জনগণের সেবা করছে।
বছর বছর হাত বদল হয়, পাই কত শিক্ষার্থীর ছোঁয়া,
আত্মা কষ্ট পায়, তবুও প্রাণ ভরে করি দোয়া।
কষ্ট পাই তখন, সেবার ব্রত নিয়ে ডাক্তার হয়ে
অর্থলোলুপ হয়ে যায় যখন।
টাকা দিয়ে প্রশ্ন কিনে মেডিকেলে ভর্তি হয়,
খুব রেগে যাই!
ইচ্ছে হয় অতৃপ্ত আত্মা হয়ে ওদের ঘাড় মটকাই!
মনে হলো আগুনের গোলা দুটো চক্ষুকোটরে,
বিছানায় উঠে বসি ধড়ফড়িয়ে!
ঘুম ভাঙ্গা চোখে দেখি তাকিয়ে-
ফ্যানের বাতাসে পলিথিন
ফটফট করছে যেন গ্রীবা বাঁকিয়ে।
হাড়গুলোর কাছে উঠে যাই,
স্কাল, সারভাইকাল থোরাসিক, লাম্বার, স্যাক্রাল
একে একে টেবিলে সাজাই।
বলি চুপি চুপি: এভাবে স্বপ্নে দেখা দিয়ে
সুপথে আনো তাদের বিবেক নাড়িয়ে
যারা হয়েছে টাকার ম্যাসিন, ডাক্তার নামের কসাই।

02/05/2022

সকল সহকর্মীকে ইদের অগ্রীম শুভেচ্ছা।
ইদ মোবারক।
"অধ্যক্ষ'

Photos from Dharampur College's post 28/03/2022

নিজেকে করা প্রশ্নের উত্তর এত তাড়াতাড়ি পেয়ে যাবো! কখনো ভাবিনি।
বিশ্বনারী দিবসে ই-লার্নিংএ অবদান রাখার জন্য পাওয়া অ্যাওয়ার্ড আমাকে ভাবাচ্ছিলো। ব্যথিত হৃদয়ে আত্মজিজ্ঞাসার উত্তর খুঁজে ফিরছিলাম। শিক্ষক বাতায়নে সেরা কন্টেন্ট নির্মাতা, উপজেলায়, জেলায় একাধিকবার কন্টেন্ট প্রতিযোগিতায় প্রথম এবং জাতীয় কন্টেন্ট প্রতিযোগিতায় সেরাদের তালিকায় স্থান পাওয়া, Microsoft in Education কর্তৃক “Microsoft Innovative Educator Expert” নির্বাচিত হয়ে আন্তর্জাতিক তালিকা ভূক্ত হওয়া। সবই তো আত্মোন্নতি! এইজ্ঞানের কতটুকু সমাজকে দিতে পেরেছি? অর্জিত জ্ঞানের সঠিক প্রয়োগ করতে না পারায় প্রচণ্ড মানসিক কষ্টে আছি। অনেক প্রতিকূল অবস্থার মধ্যদিয়ে আমাকে কাজ করতে হয়। কারণ আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি সকল আধুনিক সুযোগ সুবিধা বঞ্চিত একটি প্রত্যন্ত অঞ্চলে অবস্থিত। কলেজে কোনো আইসিটি ল্যাব নাই, নাই এখানে আলাদা কোনো মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম, পাওয়া যায় না ইন্টারনেট সংযোগ।
টিকিউআই প্রজেক্ট থেকে কলেজের জন্য প্রাপ্ত একমাত্র দোয়েল ল্যাপটপটি অনেক আগেই অকেজো হয়ে গেছে। শিক্ষার্থীদের আধুনিক এবং বিজ্ঞানমনষ্ক করে গড়ে তোলার অভিপ্রায়ে নিজের অর্জিত জ্ঞান ব্যক্তিগত ল্যাপটপের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মাঝে দিয়ে চলেছি। আমার বাসা থেকে কলেজের যাতায়াত ব্যবস্থা খুব খারাপ। ভেঙে ভেঙে নানা যানবহনে যেতে হয়। এভাবে প্রতিদিন ব্যক্তিগত ল্যাপটপ বহন করে ক্লাস নেয়া অনেক কষ্টসাধ্য ব্যাপার। প্রাপ্ত বিভিন্ন অ্যাওয়ার্ড আমাকে সম্মানিত, উদ্দীপিত করার সাথে সাথে ব্যথিতও করে।
কয়েকদিন আগে ম্যাসেঞ্জারে একটা ম্যাসেজ পাই। ‘ম্যাম আমি আপনার সাথে দেখা করতে চাই, আগামিকাল কলেজে আসবেন?’ কারণ জিজ্ঞেস করায় সে একটা ল্যাপটপ কিনেছে জানালো। আমাকে দেখিয়ে কিছু কাজ শিখতে চায়। ২৬ মার্চ কলেজ বন্ধ এবং আমি ব্যস্ত থাকায় ওকে আজ আসতে বলেছিলাম। ছেলেটা আমাদের প্রাক্তন ছাত্র, নাম শিমুল। বর্তমানে সাইকোলোজিতে অনার্স থার্ড ইয়ারে পড়ছে। বাবা নাই, খুবই সংগ্রামী একটা ছেলে, ছোটোবেলা থেকে প্রাইভেট পড়িয়ে নিজের পড়ার খরচ চালিয়ে যাচ্ছে। বলেছিলাম, যেকোনো প্রয়োজনে এসো, আমার সময়ের অভাব হবে না। প্রথম বর্ষের ক্লাসে শিমুলের ল্যাপটপে আমার পেনড্রাইভে নিয়ে যাওয়া ক্লাস নিলাম। এরপর ওকে সবার সাথে পরিচয় করিয়ে দিলাম। সবার সামনে দাঁড়িয়ে সে যেটা জানালো তা ছিলো আমার কাছে অভাবনীয়! সে বললো,‘ম্যাম আমাকে প্রথম ল্যাপটপে হাত দেয়া শিখিয়েছেন। সেদিন আমি ভয় পেয়েছিলাম! তখন থেকেই ভেবেছি আমি ল্যাপটপ কিনবো এবং ম্যামের কাছে প্রেজেন্টেশন শিখবো’।
আমি জীববিজ্ঞানের শিক্ষক, আইসিটির নই। একদিন ক্লাস শেষে ওদের অফটাইম ছিলো। তাই আমার ল্যাপটপে ওয়ার্ড ফাইল ওপেন করা দেখিয়ে একে একে সবাইকে ডেকে সেই ফাইলে নিজের নাম লিখতে বলেছিলাম। প্রত্যন্ত অঞ্চলের ছেলেমেয়ে ওরা। অনেকেই ভয় পাচ্ছিলো, ইতস্ততবোধ করছিলো। অভয় দিয়ে বলেছিলাম, ‘ভাবছো কেন! ডিভাইসটা তো আমার, যদিও নষ্ট হওয়ার কিছু নাই, তবুও হলেও সমস্যা নাই…। তারপর ওরা অনেক আনন্দ নিয়ে বিভিন্ন বাটনের কাজ শিখেছিলো। ঘটনাটা এমন কিছুই নয়, ভুলেই গিয়েছিলাম। কিন্তু আজ জানলাম সেইদিনের সেই সামান্য ঘটনা কারো জীবনে এমন প্রভাব ফেলতে পারে! শিমুল আউটসোর্সিং এর কাজ শেখার ইচ্ছা নিয়ে ল্যাপটপ কিনেছে।
কয়েক বছর আগে তৌসিফ নামে মানবিক বিভাগের এক প্রাক্তন স্টুডেন্ট আমাকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠিয়ে ম্যাসেজ করেছিলো, ‘ম্যাম আপনার ক্লাসে ঢুকে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন দেখে মুগ্ধ হই। সেই থেকে চেষ্টা করেছি। আমি পাওয়ার পয়েন্টে কন্টেন্ট তৈরি করা শিখেছি। আপনার তৈরি করা ফুলেল শুভেচ্ছা স্লাইডটা আমার এখনো চোখে ভাসে…’।
ই-লার্নিং এ ঠিক কতটা অবদান রাখতে পেরেছি জানি না। তবে একজন তৌসিফ, একজন শিমুল যে তৈরি হয়েছে এটা আমার পরম পাওয়া।

18/02/2022

ধরম পুর মহাবিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক/ কর্ম চারী কে আগামী ২২/২/২২ তারিখ হতে স্ব শরীরে প্রতিষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে।নির্দেশ ক্রমে "অধ্যক্ষ'

21/01/2022

সরকারী নির্দেশ মোতাবেক ধরমপুর কলেজের সকল শিক্ষক কর্মচারী কে অফিস করার জন্য বিশেষ ভাবে বলা হলো
অধ্যক্ষ ধরমপুর কলেজ।

Photos from Dharampur College's post 01/01/2022

প্রতিবছরের মতো এবারও বিজ্ঞান মেলায় আমাদের স্টুডেন্টরা অংশগ্রহণ করেছে। মন এবং শরীর খারাপ থাকায় আমি পুরোটা সময় ওদের সাথে থাকতে পারিনি কিন্তু ওরা কৃতিত্ব দেখিয়েছে। আলহামদুলিল্লাহ! শুকরিয়া আল্লাহতালার। আমার আইডিয়ায় খুব অল্প সময়ে, অল্প খরছে চারটা প্রোজেক্ট তৈরি করেছে এবং একটা প্রোজেক্ট বিচারকদের বিবেচনায় খুবই ফলপ্রসূ এবং কার্যকর বিবেচিত হওয়ায় দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেছে। কিছুটা ঘাটতি ছিলো তাই এই অবস্থান। ফিজিক্সের আব্দুল আজিজ স্যার এবং রসায়নের আজিজুল ইসলাম স্যার সার্বক্ষণিক সহযোগিতা করেছেন। প্রিন্সিপাল স্যারের সময়োচিত নির্দেশনা এবং শিক্ষার্থীদের প্রচেষ্টায় এই অর্জন। ধন্যবাদ সংশ্লিষ্ট সকলকে।

30/12/2021

ধরমপুর উচ্চবিদ্যালয় সহ দুর্গাপুর উপজেলার সকল বিদ্যালয়ের s s c(২০২১) পাসকৃত ছাত্রছাত্রীদের ধরমপুর মহাবিদ্যালয়ের পক্ষথেকে অভিন্দন।

30/12/2021

বিজ্ঞান সপ্তাহ ২০২১ এ দুর্গাপুর উপজেলা হতে ধরমপুর মহাবিদ্যালয় ২য় স্থান অধিকার করায় শিক্ষক ও ছাত্রছাত্রীদের অভিনন্দন।
-অধ্যক্ষ।

Photos from Dharampur College's post 14/12/2021

Dua and discussion held at Dharampur College on the occasion of Intellectual Day'21...

Photos from Dharampur College's post 18/10/2021

Rasel's Day is observed with due solemnity....
The day is being celebrated with the discussion and prayers of his soul to be in Jannah.

15/10/2021

সকল জাতীয় দিবস ছুটির আওতা মুক্ত।

15/10/2021

আগামী ১৮.১০.২১তরিখ রোজ সোমবার সকাল ১০ টায় শেখ রাসেল দিবস উদযাপন উপলক্ষে সকল শিক্ষক কর্মচারি ও ছাত্র ছাত্রী দের কে সকাল ১০টায় কলেজে মাঠে উপস্থিত থাকর জন্য বিশেষ ভাবে বলা হলো। বিষয় টি অতিব জরুরি।
মোঃ ওমর আলী
অধ্যক্ষ
ধরম পুর মহা বিদ্যালয়।

12/09/2021

ধরমপুর মহাবিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক কর্মচারি গণকে বিশেষভাবে জানানো যাচ্ছে যে, অদ্য ১২/০৯/২০২১ইং তরিখ হতে মহাবিদ্যালয়ে প্রতিদিনের তথ্য (শিক্ষক ছাত্র/ ছাত্রীর উপস্থিতি সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ) গুগল ফরমের মাধ্যমে পূরণ পূর্বক তা উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে বাধ্যতা মুলক ভাবে জানানো হচ্ছে, বিধায় সপ্তাহে ছয়দিন আপনাদের উপস্থিতি একান্ত আবশ্যক।
মোঃ ওমর আলী
অধ্যক্ষ, ধরম পুর কলেজ।

09/09/2021

ওপেনিং ডে তে সকল শিক্ষক/ কর্মচারিকে অবশ্যই উপস্থিত থাকতে হবে।
'অধ্যক্ষ'

Photos from Dharampur College's post 09/09/2021

আগামী ১২/০৯/২১ তারিখে সারা দেশে স্কুল কলেজ খোলার অংশ হিসেবে ধরমপুর মহাবিদ্যালয়ের পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচির অংশবিশেষ

08/09/2021

সকল শিক্ষক কর্মচারি গণ কে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মহাবিদ্যালয় খোলার দিন থেকে উপস্থিত থাকবার জন্য বলা হলো। "অধ্যক্ষ"

30/08/2021

ধরমপুর মহাবিদ্যালয়ের যেসকল শিক্ষক এখনো এসাইনমেন্টের জমাকৃত খাতা মূল্যায়ন করেননি অতি সত্তর তা মূল্যায়ন করে অফিসে জমাদানের জন্য বলা হলো। ' অধ্যক্ষ'

17/08/2021

ধরমপুর মহাবিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক কর্মচারি কে এন. আই. ডি. নম্বর১৮/৮/২১ তারিখের মধ্যে ফোনে জানানো র জন্য বলা হলো।
অধ্যক্ষ

30/07/2021

অনিবার্য কারণ বশত, ধরমপুর কলেজের সকল শিক্ষক কর্মচারি ও ২০২১সালের পরীক্ষার্থীদের আগামী ০৭/০৮/ ২০২১ তারিখের পরিবর্তে ১/৮/২১ তারিখে সকাল সাড়ে দশটাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে মহাবিদ্যালয়ে উপস্থিত হওয়ার জন্য বিশেষভাবে বলা হলো। শিক্ষকমণ্ডলী তাদের নিজ নিজ বিষয়ের ছাত্র/ছাত্রীদের উপস্থিত হওয়ার ব্যাপারে উদ্বুদ্ধ করবেন। বিষয়টি অতিব জরুরী।
অধ্যক্ষ, ধরমপুর মহাবিদ্যালয়।

28/07/2021

এতদ্বারা ধরমপুর কলেজের ২০২১ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জানানো যাচ্ছে যে, শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের নির্দেশনার আলোকে দুই সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রদান করা হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে অ্যাসাইনমেন্ট গ্রহণ ও জমা দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করার লক্ষে আগামী ০৭/০৮/২০২১ তারিখ সকাল ১০ঃ০০ ঘটিকায় কলেজ প্রাঙ্গণে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করা হবে। আলোচনায় সকল বিষয়ের শিক্ষক ও ছাত্র /ছাত্রীকে যথাসময়ে উপস্থিত থাকতে আহবান জানানো হলো।
বিষয়সমুহঃ
পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, উচ্চতর গণিত,জীববিজ্ঞান, ইতিহাস , ইসলামের ইতিহাস, ই, শিক্ষা,সামাজবিজ্ঞান, সমাজকর্ম, অর্থনীতি, পৌরনীতি, ভূগোল, উৎপাদন ব্যবস্থাপনা ও বিপনন, হিসাব বিজ্ঞান, মনোবিজ্ঞান,কৃষিশিক্ষা, ব্যবস্থাপনা।
বিষয়টি অতীব
অধ্যক্ষ, ধরমপুর মহাবিদ্যালয়।
বিঃদ্রঃ যেহেতু সকল বিষয়ে এসাইনমেন্ট ইতোমধ্যে প্রকাশ করা হয়েছে, সেহেতু সংশ্লিষ্ট বিষয়ের শিক্ষকদের এখন থেকেই তা ছাত্র/ছাত্রীদের অবগতি করানো সহ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য বিশেষ ভাবে বলা হলো।

25/07/2021

সকল শিক্ষক মণ্ডলী কে নিয়মিত সরকারি প্রজ্ঞাপন ফলো করার জন্য অনুরোধ করা হলো।
অধ্যক্ষ।

24/07/2021

চতুর্থ সপ্তাহের এসাইনমেন্ট ছাত্র/ছাত্রীদের মাঝে বিতরন ও জমা নেওয়ার বিষয়ে সার্বিক কর্মকাণ্ড গ্রহনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করতে ধরমপুর মহাবিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট বিষয়ের শিক্ষক মণ্ডলী কে অনুরোধ করা হলো।
বিষয় সমূহ।
বাংল, ইংরেজি, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি,
পৌর নীতি ও সুশাসন, অর্থনীতি, যুক্তিবিদ্যা, পদার্থবিদ্যা, হিসাব বিজ্ঞান
অধ্যক্ষ, ধরম পুর মহা বিদ্যালয়।

08/07/2021

আমাদের সন্তানতুল্য শিক্ষার্থীদের জন্য প্রেরণাদায়ী প্রামাণ্য দলিল (Motivational Document)।
সময়কে কখনো ছুঁয়ে দেখিনি। জীবনকে শুধু বয়ে যেতে দেখি। বহমান স্রোতে দেখতে পাই জীবনের কত উত্থান-পতন, কত টানাপোড়েন, কত সফলতা-ব্যর্থতার আখ্যান! খুব সাধারণ জীবন যাপনে অভ্যস্ত আমি। কেন জানি না অনেকেই অকপটে তাদের সমস্যার কথা, কষ্টের কথা শেয়ার করে। এমনকি আমার টিনেজার শিক্ষার্থীরাও। তাদের কষ্টগুলো অনুভব করি, আনন্দগুলো উপভোগ করি। তাই হয়ে যাই তাদেরই একজন।
আমরা শিক্ষার্থীদের পড়াই সফল মানুষদের গল্প। যাদের পরিচিতি বিশ্বব্যাপি কিন্তু আমাদের আশেপাশের মানুষগুলোর ছোটো ছোটো সাফল্য, ব্যর্থতার বৃত্তান্ত হতে পারে অনুপ্রেরণার উৎস, করতে পারে উদ্দীপ্ত, দেখাতে পারে পথের দিশা। আজ এমন একজন সফল এবং স্রষ্টার প্রতি কৃতজ্ঞ প্রকৃত মানুষের কথা বলবো, যিনি ব্যর্থতার কষ্ট নিয়ে স্রোতের বিপরীতে চলেছেন। হয়তো আকণ্ঠ নিমজ্জিত হতে পারতেন, হারিয়ে যেতে পারতেন অতল গহ্বরে কিন্তু সেটা হয়নি। প্রচণ্ড আত্মবিশ্বাসের জোর আর অদম্য প্রচেষ্টায় দৃপ্ত পদক্ষেপে ফিরে এসেছেন মূল স্রোতে। গড়ে নিয়েছেন নিজের অবস্থান। পেয়েছেন ঈর্ষণীয় সাফল্য! এমন ইতিহাসই হতে পারে আমাদের সন্তানতুল্য শিক্ষার্থীদের জন্য প্রেরণাদায়ী প্রামাণ্য দলিল (Motivational Document)।
ওনার সাথে আমার পরিচয় কাকতালীয়ভাবে। শিক্ষার্থীদের নিয়ে আমার লেখাগুলো তিনি পড়েছেন। জেনেছেন ঢাবিতে পড়া সেই ছেলের কথা, যে একবছরের মধ্যে বাবা-মা দুইজনকেই হারিয়ে একেবারে নিঃস্ব হয়ে গেছে। অনুভব করেছেন অদেখা, অসুস্থ, অসহায় সেই মানুষটার কথা, যিনি ফেইসবুকে আমাকে তার দুঃসহ জীবনের কথা জানিয়েছিলেন। বুঝেছেন সেই ছেলের কষ্ট, যে অস্বচ্ছল বাবা-মার সংসারের হাল ধরার চাপে নিজের পড়াশুনা চালিয়ে নিতে হিমশিম খাচ্ছে। আমি তাদের পাশে থাকলেও ওদের প্রয়োজনের কাছে সেটা কিছুই নয়। আর আমার মনটাও অত বিশাল নয়।
দেখেছি বিশাল মন কাকে বলে! তিনি নিজে থেকেই আমার কাছ থেকে ওদের মোবাইল নম্বর নিয়ে কথা বলেছেন। সাহায্য করেছেন, নিজের জীবন সংগ্রামের উদাহরণ দিয়ে পাশে আছেন বলে আশ্বস্তও করেছেন। যারা আমার সেদিনের সেই লেখাগুলো পড়ে নিজের ঢোল বাজাচ্ছি বলে বিরূপ মন্তব্য করেছিলেন, কিছুটা মন খারাপ হয়েছিলো। আজ বুঝতে পারছি আমার সেই লেখাগুলো ওদের জন্য কত মূল্যবান!
জীবন সংগ্রাম! এর যে কত রকমফের আছে তা কে জানে! শুধু দারিদ্রপীড়িত জীবনের সাথে, সমাজের সাথে সংগ্রাম করাকে জীবন সংগ্রাম বলে না। স্বপ্ন পুরণে ব্যর্থ হয়ে মনের বিরুদ্ধে সংগ্রামও কঠিন জীবন সংগ্রাম! ওনার লেখা থেকেই বলি তাঁর জীবন সংগ্রামের কথা- ‘সপ্তম, অষ্টম শ্রেণীতে পড়ার সময় বাংলাদেশ আর্মির একজন জেনারেল শাসন ক্ষমতায় ছিলেন। মাঝে মাঝে তাকে আর্মির পোশাকে দেখে অনেক স্মার্ট লাগতো। তখন থেকে ঐ ইউনিফর্মটার উপর দুর্বলতা হয়ে গিয়েছিল। নিজের মধ্যে একটি স্বপ্ন হয়েছিল আর্মি অফিসার হওয়ার। পরবর্তীতে এরশাদ সরকার সেই স্বপ্নকে আরো উস্কে দিয়েছিল। এর মধ্যে এসএসসি পাশে করে কলেজে ভর্তি হই। কলেজে অধ্যয়নকালে মেডিকেল কলেজের পাশ দিয়ে যাওয়া আসার সময় ডাক্তারী পড়া ছেলে মেয়েদের অ্যাপ্রন দেখে অনেক আকর্ষণীয় মনে হতো। তখন লক্ষ্য স্থির করি আর্মি অফিসার অথবা ডাক্তার হব। এইচএসসি পাশের পর ঐ দুইটা লক্ষ্য নিয়ে এগোতে থাকি। আর্মিতে পরীক্ষা দিতে থাকলাম আর নিচ্ছিলাম এমবিবিএসএ ভর্তি পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি। মেডিকেল কলেজে পর-পর তিন বার পরীক্ষা দিলাম, সুযোগ পেলাম না। আমাদের সময় মেডিকেলে তিনবার পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের সুযোগ দিয়েছিল। এর মধ্যে একবার সেনাবাহিনী এবং একবার বিমান বাহিনীতে তাদের সিলেকশনের শেষ পরীক্ষায় অবতীর্ণ হই এবং ব্যর্থ মনোরথে ফিরে আসি। মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার বিষয়ে একটা বিষয় উল্লেখ করতে চাই, তৃতীয় বারের পরীক্ষায় ১৫০টি অবজেকটিভ প্রশ্ন ছিল। যারা ১২২ টা সঠিক করতে পেরেছিল তারা সুযোগ পায়। আমার সঠিক হয়েছিল ১২১ টা। কীভাবে জানলাম? বিমান বাহিনীর I.S.S.B পরীক্ষায় অকৃতকার্য হয়ে মনে হলো মহাখালী স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে যাই। ভাবছিলাম আমিতো ভাল পরীক্ষা দিয়েছি, সুযোগ পেলাম না কেন! সেখানে গিয়ে একজন কর্মকর্তাকে বললাম আমার পরীক্ষার নম্বরটা জেনে দেয়া যায় কি না। উনি কিছুক্ষণ পরে এসে জানালেন তোমার ১২১ টা সঠিক হয়েছে, ১২২ টা পর্যন্ত ভর্তির সুযোগ পেয়েছে। উনি আমাকে আশা দিয়ে বললেন ওয়েটিং লিষ্টে আসতে পারে। পরবর্তীতে ওয়েটিং লিস্টেও আমার নাম স্থান পায়নি।
দুইবার আইএসএসবিতে আউট হলাম আবার ডাক্তারি পরীক্ষাতেও কৃতকার্য হতে পারলাম না। তখন এইচএসসি পাশের পর তিনবছর অতিক্রান্ত! বাড়ীতে বাবা-মাকে বললাম আর লেখা পড়া করবো না’…। (চলবে)
লক্ষ্যচ্যুত ভাঙ্গা মনের যে কি দুর্বিষহ জীবন! যে হয়েছে সেই বুঝে এর যন্ত্রণা! আমাদের দেশে এ যন্ত্রণা তো লক্ষ লক্ষ শিক্ষার্থীর। মনে পড়ে গেল আমার পরিচিত একশিক্ষকের মেয়ের আত্মহত্যার কথা। আদর ভালোবাসা কোনোকিছুর অভাব ছিলো না তার। শুধুমাত্র মেডিকেলে ভর্তি হতে না পারা, নিজের নামের আগে ডাক্তার লিখতে না পারার ব্যর্থতা তার মনকে কুড়ে কুড়ে খেয়েছে (পড়ার টেবিলে নামের আগে ডাক্তার লিখেছিলো)। ঢাকা ইউনিভার্সিটিতে ভর্তি হয়েও জীবনকে তার তুচ্ছ মনে হয়েছে! ভুলে গেছে বাবা-মার অফুরন্ত আদর, সীমাহীন ভালোবাসা! জীবন তো এতছোটো নয়! লক্ষ্য পুরণ না হলে জীবন নিরর্থক হয় না, মূল্যহীন হয়ে যায় না। সফল জীবন শুধু কিছু কাঙ্ক্ষিত স্বপ্নের বাস্তবায়ন নয়। একটা জীবনের সাথে জড়িয়ে আছে কয়েকটা জীবন। তাদের দুঃখের অসীম সাগরে ভাসিয়ে নিজের ইহকাল পরকাল ধ্বংস কখনোই কাম্য হতে পারে না। প্রকৃত জীবনবোধের শিক্ষা হতে পারে না।… বাকিটুকু আগামি অংশে।

28/06/2021

29/0৬/21 তারিখে ৩য় সপ্তাহে' র এসাইনমেন্ট দিবেন, ইংরেজি,বাংলা, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি,পদার্থবিদ্যা,পৌরনীতিওসুশাসন,অর্থনীতি,যুক্তি বিদ্যা ও হিসাববিদ্যা বিষয়ের স্যার গণ। সংশ্লিষ্টশিক্ষক মহোদয় কে উক্ত তারিখে সকাল ১০টায় মহাবিদ্যালয়ে উপস্থিত হ'য়ে স্বাস্থ্য সম্মতভাবে এসাইনমেন্ট ছাত্র/ছাত্রীর মধ্যে বিতরণ করার জন্য বিশেষ ভাবে বলা হলো।
অধ্যক্ষ,ধরমপুর মহাবিদ্যালয়।

22/06/2021

প্রতিনিয়ত সকল শিক্ষক কে ইনবক্স চেকিং করার জন্য বলা হলো।
অধ্যক্ষ।

22/06/2021

স্কোর ২০ হলে ১৬-২০, ১১-১৫, ০৬-১০, ও ০১-০৫ এভাবে হবে।
অধ্যক্ষ, ধরমপুর মহাবিদ্যালয়।

22/06/2021

সকল শিক্ষক মহোদয় কে এসাইনমেন্ট দেওয়ার আগে ছাত্র/ছাত্রীরা কি ভাবে তা লিখে জমা দিবে, আরো অধিকতর বুঝিয়ে বলার জন্য অনুরোধ করা হলো।
অধ্যক্ষ, ধরমপুর কলেজ।

22/06/2021

১৩-১৬ অতিউত্তম ৯-১২উত্তম ৫-৮ ভালো ১-৪ অগ্রগতির প্রয়োজন।এভাবে মুল্যায়ন করতে হবে।
অধ্যক্ষ, ধরমপুর কলেজ।

22/06/2021
22/06/2021

২০২২সালের পরিক্ষার্থীদের জন্য প্রদেয় অ্যাসাইমেন্ট প্রদানের জন্য রুটিন। রুটিন অনুযায়ী সকলকে অ্যাসাইমেন্ট প্রদানের জন্য অনুরোধ করা হলো।

20/06/2021

এতদ্বারা ধরমপুর মহাবিদ্যালয়ের ভর্তিকৃত ২০২২ সালের এইচএসসি পর্রীক্ষার্থীদের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, আগামী ২২/০৬/২০২১খ্রিঃ রোজ মঙ্গলবার সকাল ১০টায় (ইংরেজি, পদার্থ,অর্থনীতি, পৌরনীতি ও সুশাসন, যুক্তি বিদ্যা,হিসাব বিজ্ঞান) বিষয়ের অ্যাসাইমেন্ট (বাড়ির কাজ) দেওয়া হবে।সেজন্যে স্বাস্থ্য বিধি মেনে সকল ছাত্র ছাত্রী,শিক্ষক ও কর্মচারীদের মহাবিদ্যালয় উপস্থিত হওয়ার জন্য বলা হলো।
অধ্যক্ষ ধরমপুরমহাবিদ্যালয়

16/06/2021

ধরমপুর মহাবিদ্যবিদ্যলয়ের শিক্ষক/কর্মচারী গণকে আগামী২০/০৬ / ২০২১ রোজ রবিবার সকাল ১০ঘটিকায় মহাবিদ্যালয়ে উপস্থিত হওয়ার জন্য বিশেষ ভাবে বলা হলো। উপস্থিতির বিষয় সমূহ সভায় আলোকপাত করা হবে। উপস্থিতি অতিব জরুরী।

অধ্যক্ষ
ধরমপুর মহাবিদ্যালয়।
দুর্গাপুর রাজশাহী।

07/06/2021

ধরম মহাবিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক কে তাদের নিজ নিজ মাস্টার্স সনদের ফটোকপি (প্রদর্শকের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ সনদ ও ) আগামি ৯/৬/২১ তারিখ বুধবার সকাল১১টার মধ্যে কলেজে জমা দেওয়ার জন্য বিশেষ ভাবে বলা হলো।
অধ্যক্ষ, ধরমপুর কলেজ। দুর্গাপুর, রাজশাহী।

13/05/2021

ধরমপুর মহাবিদ্যালয়ের সহকর্মি গণ কে জানায় ইদুল ফিতরের শুভেচ্ছা।
'ইদ মোবারক'

04/04/2021

এতদ্বারা ধরমপুর কলেজের সকল শিক্ষককে শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের নির্দেশ মোতাবেক তথ্য প্রমানসহ অনলাইন ক্লাশ নেওয়ার জন্য অনুরোধ করা হলো।
বিষয়টি অতীব জরুরী।
এতদ্বসংগে চিঠি সংযুক্ত করা হলো।
অধ্যক্ষ,
ধরমপুর কলেজ, দুর্গাপুর রাজশাহী।

Want your school to be the top-listed School/college in Rajshahi?

Click here to claim your Sponsored Listing.

Videos (show all)

Location

Category

Telephone

Website

Address

Rajshahi
Other Education in Rajshahi (show all)
Rajshahi Collegiate School Rajshahi Collegiate School
Shaheb Bazar
Rajshahi, 6000

First "modern" school in Bangladesh

IEEE RUET Student Branch IEEE RUET Student Branch
Rajshahi University Of Engineering & Technology
Rajshahi, 6204

IEEE RUET Student Branch is one of the dynamic student branches of IEEE BDS under IEEE Region 10. An

English World English World
Rajshahi

This is an English learning platform.

Engineering and Survey Institute, Rajshahi Engineering and Survey Institute, Rajshahi
Rajshahi, SAPURA-6203

Welcome students. Keep touch with us.

Rakib's English Care Rakib's English Care
Binodpur Bazar
Rajshahi, 6206

Assalamu Alaikum Warahmatullah. Welcome to Rakib's English Care page. Almost all of us have fear and

Imran Math Care -IMC Imran Math Care -IMC
Rajshahi, 6100

Welcome everyone to our page. This is a very important page for all classes. We hope you all find

As-Suffah Foundation As-Suffah Foundation
Terokhardia College Para
Rajshahi

দেশ, জাতি ও উম্মাহকে একটি স্বার্থক প্রজন্ম উপহার দেবার প্রত্যয়ে, আমাদের আদিগন্ত পথচলা।

Best One Varsity & Nursing Admission Coaching Best One Varsity & Nursing Admission Coaching
Rajshahi, 6200

বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি কোচিং শুধুমাত্র মানবিক বিভাগ (খ+ঘ)। নার্সিং ভর্তি কোচিং ডিপ্লোমা ও মিডওয়াইফারি।

IQRA Private Center IQRA Private Center
পুরাতন কৃষি ব্যাংক ভবন, খড়খড়ি বাইপাস, মতিহার, রাজশাহী।
Rajshahi, 6204

Dewan Mohammadia Alim online Madrasah, Paba, Rajshahi Dewan Mohammadia Alim online Madrasah, Paba, Rajshahi
Rajshahi, 6201

It's a online school

Online Tuition Center Online Tuition Center
Rajshahi, 6100

Our goal is to make the life of online tutors and students easier and safer, while helping them to r