fixuplife

fixuplife, উন্নত জীবন গড়ার নির্ভরযোগ্য প্লাটফর্ম। (Human life management and enrichment platform.)

Operating as usual

12/06/2023

SSC HSC 2025 Preparation.

শিক্ষাবর্ষের শুরুতেই,
নবম, দশম, একাদশ, দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা এই মিরাকল সুযোগ লুফে নিন।
অনেক সময় ছোট্ট কোন স্ট্রাটেজি বা আইডিয়া অথবা চিন্তার কিছুটা পরিবর্তন একজন শিক্ষার্থীর অর্জন বহুগুণে বাড়িয়ে দেয়। বাস্তবতা জানা, আত্মবিশ্বাসে উন্নতি ও চমৎকার ফলাফল, সব মিলিয়ে সেরা স্টুডেন্টদের দলে ভিড়তে, শুধুমাত্র তিন দিনের অত্যন্ত পাওয়ারফুল “হলিস্টিক লাইফ ম্যানেজমেন্ট” প্রোগ্রামটিতে অংশগ্রহণ করুন। পরিবর্তন আসবেই ইনশাআল্লাহ। গ্যারান্টেড॥

Holistic Life Management || হলিস্টিক লাইফ ম্যানেজমেন্ট
A classic. Wise. Prestigious.; Course.
কোর্সের মেয়াদ: তিন দিন।
মোট সময়: ২৪ ঘন্টা। প্রতিদিন সকাল নয়টা থেকে ছয়টা পর্যন্ত।
Revolutionary life changing experience.
।। মানি ব্যাক গ্যারান্টি।।

রেজিস্ট্রেশন করতে/বিস্তারিত জানতে,
পেইজে ইনবক্স করুন অথবা
মেইল করুন [email protected]

এবার হবে, SSC,HSC তে সেরা প্রস্তুতি।
#এসএসসি #এইচএসসি #পরীক্ষা২০২৫

07/06/2023

শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যত জীবনের প্রস্তুতিতে উচ্চতর ও বিশ্বমানের গাইডলাইন। A REAL BREAKTHROUGH.
ভবিষ্যত চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায়, সর্বাপেক্ষা সমৃদ্ধ ও পূর্নাঙ্গ রিসোর্স। জীবনের A to Z, অর্থাৎ সব প্রয়োজনীয় বিষয়গুলো এতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। প্রত্যেকের জন্য এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ কেননা, লাইফ ম্যানেজমেন্টের উপর নির্ভর করছে জীবনের উত্থান বা পতন।
আর দেরি না করে,
Poor লাইফ ম্যানেজমেন্ট ছেড়ে Rich লাইফ ম্যানেজমেন্ট কমিউনিটিতে যুক্ত হোন।

Holistic Life Management || হলিস্টিক লাইফ ম্যানেজমেন্ট
A classic. wise. prestigious.; Course.

কোর্সের মেয়াদ: তিন দিন।
মোট সময়: ২৪ ঘন্টা। প্রতিদিন সকাল নয়টা থেকে ছয়টা পর্যন্ত।
Revolutionary life changing experience.

।। মানি ব্যাক গ্যারান্টি।।

রেজিস্ট্রেশন করতে/বিস্তারিত জানতে,
পেইজে ইনবক্স করুন অথবা
মেইল করুন [email protected]

05/06/2023

ফেরত।।
যাই কুড়াবেন সব রেখে যেতে হবে।

04/06/2023

পড়াশোনা ও জ্ঞান।।
পৃথিবীতে এসেছো, নতুন জায়গা, নিরাপদে চলতে ফিরতে, খুঁটিনাটি সব জানতে হবে। যিনি পাঠিয়েছেন নির্দেশিকা সমেত, সেটা খুলে দেখ। অভিজ্ঞরা কি বলে শোন, তাদের রেখে যাওয়া লিপি থেকে জানো। এটাই পড়াশোনা। এবার নিজেই বলো, অন্যদের জন্য লিপিবদ্ধ কর। এটাই জ্ঞান।

03/06/2023

(একটা ম্যাক্সিম)

জ্ঞানের কদর।।
নিজে জ্ঞানী হতে না পারলেও, জ্ঞানের কদর করবেন।
কথাটা বুঝে না আসলেও, মনে রাখবেন।
---fixuplife

02/06/2023

শিক্ষানবিস নিয়োগ!!!
সেলস/ মার্কেটিং/এডমিন
৪ জন
অধ্যায়নরত/ সদ্য পাশকৃত শিক্ষার্থী,
৩ মাস মেয়াদ /পার্ট টাইম,
চট্টগ্রাম/ হোম অফিসের সুবিধা।
আগ্রহীরা দ্রুত সংক্ষিপ্ত বায়োডাটা সহ মেইল করুন
[email protected]
অথবা ইনবক্স করুন।

19/02/2023

সাফল্য ও ব্যর্থতার দোলাচলে ফুরোতে থাকা জীবন॥

17/02/2023

বিল্ডিং এর ফাউন্ডেশন দুর্বল হলে উপরের দিকে আর উঠানো যায় না, থেমে যেতে হয়, যেকোনো সময় কলাপ্স করার সম্ভাবনা থাকে।
জীবনের ফাউন্ডেশন দুর্বল হলে কি হতে পারে?

16/02/2023

জীবন হলো ওয়ান ওয়ে টিকেট সিস্টেম। শুধু সামনে এগিয়ে যেতে হয়, পেছনে ফেরার সুযোগ নেই। এমতাবস্থায় বুদ্ধিমান কি হুজুগে চলতে পারে?

15/02/2023

প্রকৃত জ্ঞানের প্রভাবে জীবন অর্থবোধক হয়ে উঠে, আর অজ্ঞতার প্রভাব বেশি হলে জীবনের দফারফা হয়ে যায়।

14/02/2023

জ্ঞানহীন শূণ্যতার সংস্কৃতিতে বিভ্রান্ত হয়ে প্রতিনিয়ত মানুষ নিজেদেরকে নিরাপত্তা হীনতার দিকে ঠেলে দিচ্ছে।

01/01/2023

সমৃদ্ধ জীবন ও
হলিস্টিক লাইফ ম্যানেজমেন্ট।

এক|
শহরে হোক কিংবা গ্রামে, ছোটবেলা থেকেই শিক্ষার্থীরা কৌতুহলী হয়ে বিভিন্ন বিষয়ে (জীবন পাঠ) জানার জন্য প্রচুর ছোটাছুটি করে। তবে অধিকাংশ ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য তথ্য না পাওয়ায় বা ভুল তথ্যের কারণে তারা শেখার মতন তেমন কিছু পায়না আর যা শিখে, পরবর্তীতে তার খুব কমই কাজে আসে। ততদিনে নিজেদের মেধা, সময়, অর্থ-সম্পদের বড় একটা অংশ জীবন থেকে হারিয়ে ফেলে। আর জীবনটা আটকা পড়ে বিশাল পৃথিবীর ছোট একটা গণ্ডির মাঝে(চিন্তায়, মানসিকতায়, কর্মে বা জ্ঞান অর্জনে)।

অজ্ঞতা ও গাফিলতি মানবজীবন ধ্বংসের অন্যতম মূল দূটি কারণ। তার উপর প্রজ্ঞাবান জ্ঞানী মানুষের সান্নিধ্য না পাওয়া বড় ধরণের বিপর্যয়।
//জ্ঞানের ও জ্ঞানীর সান্নিধ্য।

দুই|
ভার্চুয়াল জগতকেই ঠিকানা বানিয়ে রেখেছে। ইলুশান, ইউটোপিয়া, উইলও দা উইপ্স(will-o’-the-wisp) দিয়ে জীবন ঘিরে আছে।

ব্যাপারটা এমন যেন, মেঘের উপরে চোখ আর নীচে শরীরের বাকি অংশ। এরপর যখন হাঁটতে গিয়ে হোঁচট খেয়ে পা ছিলে ফেলছে, তথন ঠিক বুঝতে পারে না কেন হোঁচট খেল? কেননা দু’চোখে তো দেখছে সব ফকফকা, কোন সমস্যাই নাই, চোখ যে মেঘের উপরে।

এভাবে মায়া(কল্পনা) ও বাস্তবতা মিলিয়ে ফেলার অন্যতম কারণ হলো:
মানুষের ব্রেইন, “কল্পনা ও বাস্তবতার” মাঝে পার্থক্য করতে পারে না।
(যদিও ব্যথা মানুষকে বাস্তবতা বুঝিয়ে দেয়।)

আরেকটি মূল কারণ:
জীবন ও জগতের মাঝে বোঝাপড়ায় দূরত্ব বেড়ে যাওয়া। ফলস্বরূপ, জগতের যে নিজস্ব নিয়ম কানুন রয়েছে, তা বুঝতে না পারায় প্রতি পদে পদে বিপর্যয় অনিবার্য হয়ে উঠে।

আগে তো দুনিয়া(বাস্তবতা) বুঝতে হবে, এরপরেই না জিতে আসার কৌশল কাজে দিবে।

//ইউটোপিয়া ভার্সেস রিয়েলিটি।

তিন।
অতিরিক্ত শাসন, লাগাম ছাড়া লাই দেওয়া বা অস্বাভাবিক উৎকণ্ঠা কোনটাই ভালো মানের জীবন ব্যবস্থা নয়।
অপরদিকে দৈনন্দিন জীবনের সমস্যা যেমন, পড়াশোনায় বেহাল দশা, অর্থনৈতিক সংকট, দুর্বিষহ জীবন, চাওয়া পাওয়ার বিশাল ফারাক ইত্যাদি মূলত বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দুর্বল ব্যবস্থাপনা প্রসূত।
যদিও জীবন ব্যবস্থাপনা বিষয়ে, বাল্যকালে কিছুটা পড়াশুনা হয় যেমন, ছাত্রজীবন/অধ্যাবসায়/নিয়মানুবর্তিতা/Aim in life প্রভৃতি, তবে, প্রতিদিনকার কাজকর্মের সাথে এসবের কোন সম্পর্ক থাকে না।

এইসব ছাড়াও, জীবনের প্রতিটি মূহুর্তের সঙ্গে জড়িত, এমনসব গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয় যেমন,
গোল সেটিংস, টার্গেট চেইস করা, প্রায়োরিটি বুঝতে পারা, Good choice/Bad choice ইত্যাদিতে দক্ষতা অর্জনে শিশুকাল থেকেই হাতে কলমে লাইফ ম্যানেজমেন্ট শেখার প্রয়োজন রয়েছে কিন্তু বড়দের অবহেলায় তা আর হয়ে উঠে না।

এভাবে বয়স বাড়ে, সময় গড়ায়, আর গোলমেলে জীবন ও অনাবশ্যক কিছু জটিলতার বোঝা কাঁধে নিয়ে বেশিরভাগ মানুষ পিছিয়ে যেতে যেতে এগুতে থাকে।

// ব্যাক্তি জীবনে ব্যবস্থাপনা।

চার।
আমরা সকলে জানি,
নামীদামী খেলোয়াড়রা এমনিতেই ভালো খেলেন, তা সত্ত্বেও পৃথিবীর সেরা সেরা কোচ, সাইকোলজিস্ট, থেরাপিস্ট নিয়োগ দেয়া হয়।

কর্মক্ষেত্রে, সর্বদা নতুনত্ব গ্রহণে বা সংকটকালীন পরিস্থিতি উত্তরণে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মরত এবং ব্যক্তি পর্যায়ে অনেকেই নিয়মিত প্রশিক্ষণ নিয়ে থাকেন।

ব্যক্তি জীবনে, সংকট নিরসনে বা উৎকর্ষ সাধনে প্রশিক্ষণ গ্রহণের তেমন একটা সুযোগ/ব্যবস্থা নেই বললেই চলে।
পরিস্থিতি অবনতি হলে সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে অনেকেই চিরতরে হারিয়ে যান অথবা
হাতুড়ে শ্রেণীর মানুষদের শরণাপন্ন হন(এ সংখ্যা ব্যাপক)। খুব কম সংখ্যক আছেন যারা বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেন দেরিতে হলেও।

প্রশিক্ষণ মূলত কঠিন-বিষয়বস্তুকে সহজ করে দেয়।
# অপ্রতুল প্রশিক্ষণ/কর্মশালা

পাঁচ।
সমৃদ্ধি অর্জনে চার/পাঁচ জেনারেশন পর্যন্ত অপেক্ষার প্রয়োজন নেই। বর্তমান জেনারেশন দ্বারাই অসাধারণ ব্রেকথ্রু সম্ভব। শুধু প্রয়োজন মনস্তাত্ত্বিক/বুদ্ধিবৃত্তিক লেভেলে পরিবর্তন আর প্রপার গাইডেন্স; অর্থাৎ সাধারণ মানের জীবনের চিন্তাভাবনা থেকে উঁচু মানের জীবন ব্যবস্থাপনা তে স্থানান্তর। এই পরিবর্তনে, প্রত্যেক শিক্ষার্থী প্রকৃত হীরের টুকরো তথা সত্যিকারের রত্ন হয়ে উঠতে পারে।

এমতাবস্থায় শিক্ষার্থীদের উচ্চ আসনে পৌঁছে দিতে, তাদের পাশে দাঁড়াতে “হলিস্টিক লাইফ ম্যানেজমেন্ট” কোর্সটি ডিজাইন করা হয়েছে এবং এর মাধ্যমে নিজেকে দ্রুত পরিবর্তন করা সম্ভব। এতে জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত সকল গুরুত্বপূর্ণ বিষয় এবং পরিবর্তনের মূল উপাদান/সূত্র সমূহ প্রতিটি আলাদা করে বিশ্লেষণ সহকারে ধারাবাহিক ভাবে অন্তর্ভুক্ত করা আছে। আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ ইতিবাচক দিক হলো, সুন্দর ও সহজ উপস্থাপনার কারণে শিক্ষার্থীরা অনেক বড় ও জটিল বিষয়টি দ্রুত সময়ে আয়ত্ত করতে পারে।

লাইফ ম্যানেজমেন্ট এর বিষয়টি কেন এত গুরুত্বপূর্ণ?
ইতিমধ্যে এর কারণ বর্ণিত হয়েছে, তারপরও বর্ধিত আকারে বলা যায়,
একটা ভালো মানের ফ্যাক্টরি শুধুমাত্র দুর্বল ব্যবস্থাপনার কারণে বন্ধ হয়ে যেতে পারে।
উন্নতমানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও অদক্ষ ব্যবস্থাপনায় ধ্বংস হতে পারে।
গাড়ি চালাতেও দক্ষ চালকের প্রয়োজন হয়।

মানুষের জীবনও এর ব্যতিক্রম নয়। এটি সাধারণ জীবনের জন্য যেমন প্রয়োজন, তেমনি তৃতীয় বিশ্বের নাগরিক থেকে উন্নত বিশ্বের নাগরিকে/দায়িত্বশীল নাগরিকে পরিবর্তিত হতে উন্নত সিস্টেমের মধ্য দিয়ে যেতে হয়।

মোদ্দাকথা, যে কোন ধরণের সাপোর্ট এর চেয়ে, বর্তমানে স্টুডেন্টদের ম্যানেজমেন্ট সাপোর্ট অনেক বেশি জরুরী। যা বিশাল সব ক্ষতি কাটিয়ে উঠে উৎকর্ষের দিকে নিয়ে যায়।

আর তাই, জীবন চলার পথে হলিস্টিক লাইফ ম্যানেজমেন্ট কোর্সটি সাথে রাখুন, সেরাদের সেরা হতে শিখুন।

কোর্স: হলিস্টিক লাইফ ম্যানেজমেন্ট।
(Holistic Life Management.)
মেয়াদকাল: তিন দিন, মোট ২৫ ঘন্টার সেশন। সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত।
শুধুমাত্র চট্টগ্রাম শহরকেন্দ্রিক।

. #ফিক্সআপলাইফ #জীবনসুরক্ষা #সমৃদ্ধজীবন #জীবনধর্মীশিক্ষা

Timeline photos 18/04/2022

চোখ খুলুন। সতর্ক হোন। পদক্ষেপ নিন।
---_------------------------_--------------------------

একটা কেইস স্টাডি:

‘যারা বলেন, বাবা-মার সাথে একটু ঝগড়া হইলেই মইরা যাওয়া লাগে?...তিন বছর ধরে সুইসাইডাল চিন্তায় ভুইগা আমার এতদিনে সাহস হইসে।...আপনার মনে হয় আমার খুব ইচ্ছা ছিল মরার? বাধ্য হইসি। আপনাদের তৈরি সমাজ আর পেরেন্টিংয়ের কারণে..।’

এটি ময়মনসিংহের সরকারি বিদ্যাময়ী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী অর্ক প্রিয়া ধর শ্রীজা ‘র ফেসবুক আইডিতে দেওয়া ১৩ মার্চের স্ট্যাটাস।ওইদিন বেলা ২টার দিকে নগরীর স্বদেশী বাজারের ‌রাইট পয়েন্ট নামক বহুতল ভবন এলাকা থেকে ওই শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
(১৪ মার্চ ২০২২, যুগান্তর)

বিশ্লেষণ:
অর্ক তিন তিনটা বছর চেষ্টা করেও সমস্যা থেকে বেরিয়ে আসতে পারে নাই। জীবনের সামনে কোন পথ খুঁজে পায়নি সে, সব পথ রুদ্ধ মনে হয়েছিল তার কাছে। আর যারা তার চারপাশে ছিলেন তাঁরাও হয়তো সমস্যার গভীরতা উপলব্ধি করতে পারেননি অথবা উপযুক্ত সমাধান খুঁজে পাননি। তবে এখানে Empathy ‘র দারুণ অভাব পরিলক্ষিত হয়।

এর অন্যতম কারণ হলো:
অনেকেই আছেন যারা একাডেমিক শিক্ষায় শিক্ষিত হওয়া সত্ত্বেও, সামাজিক শিক্ষা, পারিবারিক শিক্ষা বা জীবন সংশ্লিষ্ট অন্যান্য শিক্ষায় ঘাটতিতে থাকেন। আর এই ঘাটতির কারণে তাদের নিজেদের চিন্তা চেতনায় সিদ্ধান্ত গ্রহণে যেমন ত্রুটি থাকে তেমনি তাদের সন্তানরা বেড়ে উঠে ত্রুটিপূর্ণ মানসিক স্বাস্থ্য ও চিন্তার দৈনতা নিয়ে। ফলশ্রুতিতে সামনের দিনগুলোতে বিপর্যয় অনিবার্য হয়ে ওঠে।

এখানে, এটি খুব স্পষ্ট যে, বিপর্যয় কাটিয়ে উঠতে বা কমিয়ে আনতে জ্ঞান ও চিন্তার ঘাটতি পূরণ করা আবশ্যক এবং এর কোন বিকল্প নেই।

আর এইদিকে,
জ্ঞান ও চিন্তার ঘাটতি পূরণে fixuplife বিশেষ অবদান রেখে চলেছে।

অন্যভাবে বলা যায়, fixuplife এর HLM কোর্সে অংশগ্রহণের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা নিজেদের সমস্যা নিজেরাই fix করতে সক্ষম হয়। নিজেই নিজের বাত্তি জ্বালাতে শিখে, অন্ধকার থেকে বেরিয়ে আসতে জানে। অগোছালো জীবন গুছিয়ে নিতে পারে। অন্যের সাহায্য কখন আসবে তার জন্য অপেক্ষার প্রয়োজন নেই।

বস্তুত নিজেদের স্বার্থেই, উত্তরণের উপায়-উপকরণ গ্রহণ করতে হবে অন্যথায় আশংকাজনক পরিণতি থেকেই যায়, যা কখনোই কাম্য নয়।

এক্ষেত্রে বাস্তব ও লেইটেস্ট পদক্ষেপ হলো HLM কোর্সের সাথে যুক্ত হওয়া। জীবনের অ্যাকুরেসি বাড়াতে বা জীবনকে যথাযথ, খুঁতশূন্য করতে HLM একটি উচ্চমানসম্পন্ন প্রোগ্রাম।

HLM- Holistic Life Management.

নিয়মিত আপডেট পেতে যথারীতি লাইক শেয়ার কমেন্ট মেনশন করুন।

Timeline photos 08/04/2022

দারুণ সুযোগ! সম্পূর্ণ ফ্রিতে কোর্স করার অপূর্ব সুযোগ!
-------------------------_-----------

- আরে আবির, কখন এলি!
- এই তো কিছুক্ষণ হলো, গভীর ঘুমে ছিলি, তাই আর ডাকলাম না।
-হুম, হেভি খাওয়া দাওয়া করে শুয়ে ছিলাম, কখন যে ঘুমাই পড়ছি টের পাই নাই। দারুণ একটা ঘুম হইছে। কে দরজা খুলে দিছে? আম্মা? কি করছিলি এতক্ষণ?
- তোর পড়ার টেবিলে রাখা fixuplife(ফিক্সআপ লাইফ) এর লিফলেট টা পড়তেছিলাম আর জানলা দিয়া দূরের বাঁশ ঝাড়টা দেখতে দেখতে আনমনা হই গেছিলাম।
- ‘হলিস্টিক লাইফ ম্যানেজমেন্ট' কোর্স টা করবি নাকি? আমি করবো চিন্তা করছি, হাতে সময় আছে আর টাকাটাও কম, তাছাড়া সামনে আরো বাড়তে পারে। তুইও করে ফেল। জীবনের ব্যাপারে গভীর জ্ঞানের প্রয়োজন আছে।
- আরে দূর, আমার তো পড়ার খরচ যোগাইতে হিমশিম অবস্থা। বাড়তি টাকা যোগাড় করাতো অসম্ভব ব্যাপার। টাকার অভাবে এভাবেই আমরা পিছায় থাকুম। তোরা আগায়ে যাবি।
- তোরে পিছায়ে থাকতে হবেনা। এদের কাজই হইলো মানুষরে প্রমোট করা, মানে হইলো মানুষরে টাইন্যা নীচ থেকে উপরের লেভেলে নিয়া আসা। গুড নিউজটা হইলো, আমি ডিসকাউন্টের বিষয়ে কথা বলছিলাম। তখন তারা বললো যে একেবারে অসচ্ছল হলে পুরোটাই ফ্রি। তার মানে তুই সু্যোগ পাবি, কোন টাকা লাগবে না। এখন তোর কাজ শুধু তাড়াতাড়ি বুকিং দেয়া।
- দোস্ত আমারতো খুব খুশি লাগতেছে।
- দাঁড়া, আম্মা ডাকতেছে, ভেতর থেকে আসতেছি। এই নে গরম গরম পিঁয়াজু আর মুড়ি খা।
- দারুণ! দারুণ!! আজকে তোর এখানে আইস্যা লাভের উপর লাভ হইলো। সব খুশি একসাথে হইছে।
এরপর দুই বন্ধু আড্ডায় মেতে উঠলো।

কোর্স করার বেশ কয়েক বছর পর,
আবির ও তার বন্ধুরা এখন অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী ও চৌকস, কেননা ইনারা জীবনের চলার পথ চিনতে শিখেছে।
তারা নিজেরা লাভবান হয়েছে, আবার অন্যদেরও উদ্বুদ্ধ করে সমৃদ্ধির পথ দেখিয়েছে।

এবার, নিজেকে সমৃদ্ধ করতে অতি সত্বর কোর্সটি করে ফেলুন।

ফর্মের লিংক প্রথম কমেন্টে দেয়া হয়েছে।

Timeline photos 23/03/2022

ফ্যান্টাসিময় জীবন।
বর্তমান ছেলেমেয়েরা বেড়ে উঠছে অনেকটাই বিভ্রান্ত হয়ে, প্রতিনিয়ত এত এত নতুন বিষয় সামনে আসছে, বিভ্রান্ত না হয়ে পারা যায় না। পর্যাপ্ত জ্ঞানের অভাবে নিতান্তই তুচ্ছ কারণে অনেক সময় অবস্থা এত খারাপ হয় যে, জীবনটাই খুইয়ে বসে অথবা সারা জীবন ধরে মূল্য চুকাতেই থাকে।

অতএব,
জীবনে চরম মূল্য দেয়ার আগে, ছোট্ট অথচ পাওয়ারফুল কোর্সটি ট্রাই করে দেখুন।
নিজের ও পরিবারের সুরক্ষায়, কোর্সটির ব্যাপারে জানুন, ভাবুন।

এক ঝলকে fixuplife:
fixuplife উন্নত মানুষ ও উন্নত জীবন গড়ার প্লাটফর্ম। এটি এমন এক প্লাটফর্ম যেখানে,
দুর্দশা, সাফারিং পরবর্তীতে অনুপ্রেরণার গল্প হয়ে উঠে;
আর জীবনটা, অনেক বড় হতে চায়।

এই পরিপ্রেক্ষিতে প্রণীত হয়েছে ‘Holistic Life Management’, যেন হতাশাগ্রস্থ বা দুর্বিষহ জীবন(Toxic life) থেকে মানুষ বেরিয়ে আসতে শিখে, যেন কেউ ঝরে না যায়। আর নিজেকে সর্বোচ্চ পর্যায়ে বিকশিত করতে সক্ষম হয়।

সামগ্রিক ভাবে এটি একটি বুদ্ধিবৃত্তিক-আত্মরক্ষা, আত্মনির্ভরশীল, আত্মনিয়ন্ত্রণ ও আত্মউন্নয়নমূলক কোর্স।

এখানে,
জীবন সম্বন্ধীয় জ্ঞান আরো বেশী গভীর ও স্বচ্ছ হয়। সিদ্ধান্ত গ্রহণ, কাজের ক্ষেত্রে ভুল ভ্রান্তি হ্রাস পায় এবং শুদ্ধতার আধিক্য ঘটে। আর মানসিক প্রশান্তি ও উন্নত জীবনের জন্য শুদ্ধতা জরুরী। fixuplife ঠিক এই কাজটিই করছে।

: Strategy Of Living. :: GOOD TO GREAT.

জীবনের প্রতিটি পাতায়
| Holistic Life Management || হলিস্টিক লাইফ ম্যানেজমেন্ট|
A classic. Interesting. In-depth. Prestigious course.

কোর্সটি কাদের জন্য অধিক ফলপ্রসূ:

যারা ব্রেইন , বুদ্ধিমত্তা, জ্ঞান ও চিন্তা শক্তি কাজে লাগিয়ে জীবনকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যেতে চান তারা কোর্সটির ব্যাপারে আগ্রহী হতে পারেন, কেননা আপনার স্বপ্ন পূরণে এটি আপনাকে আজীবন বেসিক ও ইউনিক প্যাটার্নে সাপোর্ট দিবে।
আর যারা তালগোল পাকানো পিছিয়ে পড়া ছোট জীবনে অভ্যস্ত হয়ে পড়েছেন তাঁরাও কোর্স টি করতে পারেন, হয়তো আপনার পরবর্তী জেনারেশন আপনার মাধ্যমে উপকৃত হবে।

অষ্টম শ্রেণী থেকে অনার্স পড়ুয়াদের জন্য সবচেয়ে বেশি উপযুক্ত, কেননা এনাদের হাতে রয়েছে জীবন গড়ার পর্যাপ্ত সময়, আর রয়েছে বিশাল বিশাল দারুন সব স্বপ্ন।

তাছাড়া, জীবন ব্যবস্থাপনা, এটা শেকড়ের ব্যাপার; স্টুডেন্ট লাইফে এই ধরণের কোর্স, জীবনকে বটবৃক্ষের দৃঢ়তা দেয়।

হলিস্টিক লাইফ ম্যানেজমেন্ট কোর্সটিতে, জীবনের A to Z, অর্থাৎ সব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

তন্মধ্যে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয় রয়েছে,
- আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত হওয়ার প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি।
- চাপ মোকাবেলায় দক্ষতা অর্জন।
- ভুল / শুদ্ধ (Bad choice/Good choice) আইডেন্টিফাই করতে পারা।
- ব্রেইন, মন এবং বিশেষ স্ট্রাটেজির সমন্বয়ে পড়াশোনায় চূড়ান্ত অগ্রগতি।
- দ্রুত প্রতিষ্ঠিত হওয়ার যাবতীয় প্রস্তুতি।
- মানুষ ও পৃথিবীর মাঝে সম্পর্ক উন্নয়ন।
- জ্ঞান ও চিন্তার বলয়ে প্রবেশের সুযোগ।
- উন্নত লিভিং কালচারে পদার্পণ।
- Conjugal life.
- Life & Death.

জীবনে কিছু করার আগে, প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে, ছোট্ট অথচ পাওয়ারফুল কোর্সটি করে ফেলুন। সারা জীবনভর সাশ্রয় হবে সময়, অর্থের এবং আরো অনেক কিছুর।

কোর্স: হলিস্টিক লাইফ ম্যানেজমেন্ট।
মেয়াদকাল: তিন দিন, মোট ২৫ ঘন্টার সেশন। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত।

#জীবনধর্মীশিক্ষা . #ফিক্সআপলাইফ

Timeline photos 26/02/2022

হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালাদের মুগ্ধ আহ্বানে নিঃসঙ্গ-অরক্ষিত মানব জীবন ও উপেক্ষিত শিক্ষা(জীবনঘনিষ্ঠ\Real life)।
------------------------------------------------------------------
আজকের দিনে এত এত বিষয়ের হাতছানিতে মানুষের মন মারাত্মক পর্যায়ে বিক্ষিপ্ত অবস্থায় আছে, নিত্য নতুন বিভিন্ন বিষয়ে জড়িয়ে পড়ায়, গুরুত্বপূর্ণ সম্পর্কগুলো আলগা হতে হতে একপ্রকার বিচ্ছিন্ন হয়ে একাকিত্ব বরণ করে। অনিশ্চয়তা গ্রাস করে।

এভাবে অনিশ্চয়তা, আশঙ্কা সর্বোপরি নিরাপত্তাহীনতার কারণে মনের উপর অনবরত চাপ বাড়তে থাকে। এক পর্যায়ে ঘটনা দুর্ঘটনার জন্ম দিয়ে মিডিয়ায় খবর হচ্ছে, আদালত পাড়া আর হাসপাতালগুলো বেশ জমজমাট থাকছে।
এরি মাঝে অনেকে হয়ত ভাগ্য গুণে বেঁচে যায়, আবার প্রচণ্ড কুৎসিতভাবে অনেকের জীবনের পরিসমাপ্তি ঘটে। এই ধরণের অতি নিম্নমানের লাইফ ম্যানেজমেন্টের বাস্তব কিছু উদাহরণ সামনে আনা হলো যেন, কেউ ফাঁদে পা না দেয়, আরেকটি জীবন রক্ষা পায়।

একাডেমিক শিক্ষায় শিক্ষিত হওয়া সত্ত্বেও,
জীবনঘনিষ্ঠ জ্ঞান কেন এত গুরুত্বপূর্ণ। এত গুরুত্বপূর্ণ।
-----------------------------------------------------------------

@
স্নাতকে প্রথম হওয়া শাবি শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা
: ১৪ জানুয়ারি ১৯, সমকাল।।
নিহত শিক্ষার্থী তাইফুর রহমান প্রতীক বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি (জিইবি) বিভাগের শিক্ষার্থী ছিলেন।..... প্রতীকের আত্মহত্যার জন্য জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষকদের দায়ী করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন তার বড় বোন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক শান্তা তাওহিদা।

@
দক্ষিণখানে ফ্ল্যাটে ৩ লাশ: ঋণের হতাশা থেকে স্ত্রী ও সন্তানদের খুন
:১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, যুগান্তর।
জুয়া ও মাদকে আসক্ত হয়ে কোটি টাকার বেশি ঋণ করে ফেলেছিলেন বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন লিমিটেডের (বিটিসিএল) উপসহকারী প্রকৌশলী রাকিব উদ্দিন ভুঁইয়া। এ কারণে সংসারে অশান্তি লেগেই থাকত। এ নিয়ে ঝগড়া-বিবাদে স্ত্রী ও দুই সন্তানকে হত্যার পর গা ঢাকা দিয়েছেন তিনি।

@
তিন মাস ঘরে খাবারের কষ্ট, ফ্রিল্যান্সারের আত্মহত্যা
০১ জুন ২০২১, বাংলা ট্রিবিউন।
তিনি স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘প্রিয় দেশবাসী, আসসালামু আলাইকুম। আমার পোস্টটি অবশ্যই পড়বেন। আমি মো. আনারুল ইসলাম টুটুল। .....অনেক বিনিয়োগ, অনেক ক্ষতি হলো। কোনোভাবেই সব ঠিক করতে পারছিলাম না। আমার ছোট মেয়ে রুকু মনি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ে। তার প্যান্ট ছিঁড়ে গেছে। ওর আম্মুকে বলছে সেলাই করে দাও। আমার স্ত্রী ছেঁড়া জামা, বোরকা পরে, এগুলো দেখে কীভাবে সহ্য করি।‘

@
ঘটনার কিছুক্ষণ আগে বাবাকে ফোন করেছিল আনুশকা
১০ জানুয়ারী, ২০২১, Somoynews.tv
তিনি বলেন, ইফতেখার ফারদিন দিহান এবং তার বন্ধুরা যখন আমার মেয়েকে নির্যাতন করছিল, তখন মেয়েটা আমার বাঁচার জন্য ফোন করে। কিন্তু মিটিং থাকায় আমি কল রিসিভ করতে পারি নাই। এটাই ছিল ভুল। আমাদের মেয়েকে ধর্ষণ করে মেরে ফেলা হয়েছে। প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) সকালে বন্ধু দিহানের মোবাইল কল পেয়ে বাসা থেকে বের হন রাজধানীর ধানমন্ডির মাস্টারমাইন্ড স্কুলের ‘ও’ লেভেলের শিক্ষার্থী আনুশকা নূর আমিন। এরপর কিশোরীকে কলাবাগানের ডলফিন গলির নিজের বাসায় নিয়ে যান দিহান। ফাঁকা বাসায় তাকে ধর্ষণ করা হয়।

@
ঢাবি ছাত্র হাফিজুরের অস্বাভাবিক মৃত্যুর কারণ এলএসডি: পুলিশ
২৭ মে, ২০২১, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে শাহবাগ থানার ওসি মামুন অর রশিদ বলেছিলেন, ১৫ মে রাত পৌনে ৮টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজের সামনে ডাব বিক্রেতার কাছ থেকে দা নিয়ে নিজের গলা নিজেই কাটতে থাকেন হাফিজুর। আর বলছিলেন- ‘আমাকে মাফ করে দাও’।

@
কক্সবাজারে আত্মহননকারী ব্যক্তি আলোচিত সাবেক দুদক সচিব
৫ মার্চ, ২০১৬, ইনকিলাব
কক্সবাজার শহরের এক হোটেলে গত সোমবার বিকালে হাসান শাহরিয়ার হৃদয় (৬০) নামের আত্মহননকারী ব্যক্তি আসলে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সাবেক সচিব দেলোয়ার হোসেন বলে জানা গেছে।
হার্ভাড বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করা এই মেধাবী আমলা ওয়ান-ইলেভেনের সময় ৫০ জন আমলা, রাজনীতিক ও ব্যবসায়ীকে সন্দেহভাজন দুর্নীতিবাজের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত ও তা প্রকাশ করে ব্যাপকভাবে আলোচিত হয়েছিলেন তিনি।

@
বাবা-মাকে একাই হত্যা করে ঐশী: পুলিশ
২৪ আগষ্ট, ২০১৩ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।
এসবি কর্মকর্তা মাহফুজুর রহমান ও তার স্ত্রী স্বপ্না বেগমকে তাদের মেয়েই হত্যা করেছে বলে দাবি করেছে পুলিশ।
গোয়েন্দা কর্মকর্তা মনিরুল বলেন, গত ১৪ অগাস্ট রাতে বাবা-মাকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে ঐশী। ..অক্সফোর্ড ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের ‘ও’ লেভেলের ছাত্রী ঐশী।
পুলিশের দাবি, ‘উচ্ছৃঙ্খলতায়’ বাধা দেয়ায় বাবা-মার প্রতি ক্ষোভ ছিল ঐশীর।

@
জীবনের ওপর বিরক্ত হয়ে স্বেচ্ছামৃত্যু বিজ্ঞানীর
১১ মে ২০১৮, যুগান্তর ডেস্ক
যে মৃত্যুকে দূরে ঠেলে দেয়ার জন্য মানুষের প্রাণান্ত চেষ্টা, সেই মৃত্যুকে আলিঙ্গন করে নিলেন অস্ট্রেলিয়ার বিজ্ঞানী ডেভিড গুডাল। স্বেচ্ছামৃত্যুর জন্য সুইজারল্যান্ডের একটি হাসপাতালকে বেছে নেন ১০৪ বছর বয়সী এ বিজ্ঞানী। বিবিসি জানায়, স্বেচ্ছামৃত্যু গ্রহণ করতে গত বুধবার (২ মে) তিনি অস্ট্রেলিয়া থেকে সুইজারল্যান্ডে যান। দেশ ছাড়ার আগে বিজ্ঞানী গুডাল বলেছেন, ‘জীবনের ওপর আমি বিরক্ত। আমাকে অবশ্যই যেতে হবে। আমার জীবনকে আর রাখতে চাই না।’

নিজেদের জীবনে, এই ধরণের মারাত্মক পর্যায়ের অঘটন রোধে, কয়েকটি পদক্ষেপ গুরুত্বপূর্ণ:
-----------------------------------------
প্রথমত, যে পথে বিপর্যয় আসে সেটি বন্ধ করা বা এড়িয়ে চলা এবং একই সাথে উত্তরণের বা সম্ভাবনার পথ খুঁজে নেয়া।
দ্বিতীয়ত, জীবন চলার পথ হিসেবে best path এবং worst path এর মধ্যে বেস্ট পথ নিশ্চিত করা।

তৃতীয়ত, দলবদ্ধ পথে চলতে হয়, একক বিচ্ছিন্ন পথে নয়। প্রয়োজনে একটি থেকে অন্যটিতে যুক্ত হতে হয়।

এভাবে জীবনের সুরক্ষা ও সাফল্য চূড়ান্ত করতে, আরো কিছু টেকনিক্যাল ও স্পিরিচুয়াল বিশ্লেষণ:

-----------------------------------
ক) জীবনের প্রকৃতি'র উপলব্ধি:
------------------------------------
বাস্তবতা বুঝতে ও যথাযোগ্য প্রক্রিয়ায় জীবনকে পরিচালিত করতে কিছু প্রশ্নের উত্তর অনুধাবন করা প্রয়োজন। যেমন,

কেন নিজের জীবন নিয়ে চিন্তা করবেন? নিরাপত্তার বিষয়টি খেয়াল রাখবেন? জীবনে আপনার অর্জন আর লিগ্যাসি কি হতে যাচ্ছে? কেন নিজেকে হঠাৎ একা মনে হয়?

প্রতিটি মানুষের জীবনের পথ আলাদা। একা চলার পথে, নিজেকেই সকল পরিস্থিতির চূড়ান্ত মুখোমুখি হতে হয়, যদিও পথের সংযোগ ঘটে অনেকের সাথে সাময়িক ভাবে।
তবে পথ ভিন্ন হওয়ায় গভীর মনোযোগ ও আন্তরিকতা ব্যাতিত, অন্যের পক্ষে পরিস্থিতি উপলব্ধি করা সম্ভব হয় না। আর উপলব্ধি করলেও পথ আলাদা হওয়ার কারণে সরাসরি অন্যের ভালো তেমন কিছু করতে না পারলেও, জীবন বিধ্বস্ত করে দিতে সক্ষম হয়। খুব খেয়াল।

(এর পরের যে অংশটি অধিক গুরুত্বপূর্ণ)
পথ চলার কারণ, শুধু সম্পদ আহরণ আর এগিয়ে যাওয়ার মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। জ্ঞান ও সম্পদ তো শুধুমাত্র চলার পথের রসদ। যে উপলক্ষ্য নিয়ে পথ চলা সেই প্রাপ্তিটাই তো মূখ্য। এই প্রাপ্তির উপর নির্ভর করে, জীবন অর্থবহ হয়, মূল্যবান হয়।
জীবনের এই যে অর্জন বা লিগ্যাসি, তার দায় দায়িত্ব কিন্তু কঠিন ভাবে নিজের উপর বর্তায়।

অতএব নিজের পথের দায়িত্ব নিজেরই।
কিন্তু পর্যাপ্ত জীবনঘনিষ্ঠ জ্ঞান ও প্রস্তুতি ব্যতিত সুস্থ ভাবে এই পথ পাড়ি দেয়া একপ্রকার অসম্ভব।

---------------------------------------------
খ) জীবন চলার পথে নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখা:
----------------------------------------------
জীবন শুরুর পর থেকে চলার পথে জ্ঞান ও অজ্ঞতার শক্তিশালী প্রভাবে জীবন কখনো সফল ভাবে এগিয়ে যায় কখনো বা বিপর্যয়ের দিকে ছুটে চলে; দোদুল্যমান জীবনের উপর নিয়ন্ত্রণ বজায় রাখতে, শিক্ষা গ্রহণ ও এর প্রয়োগ শক্তিশালী করা আবশ্যক।

@ সংক্ষেপে জীবন সম্পর্কিত জ্ঞানের প্রায়োগিক পর্যায় সমূহ:
১. জীবনঘনিষ্ঠ জ্ঞান> ২. জীবন ব্যবস্থাপনা> ৩.লিভিং কালচার;

মোটামুটি এই ধরণের কাঠামোর মধ্যে দিয়ে মানব জীবন অতিবাহিত হয়। মানুষ কিভাবে বেড়ে উঠবে এবং পরবর্তীতে পৃথিবীতে কি অবদান রাখবে তা এই কাঠামোর উপর নির্ভরশীল। মানুষের অবস্থার পরিবর্তন করে বিধায় এটিকে human standard modifying platform হিসেবে আখ্যায়িত করা যায়।
এই অতি গুরুত্বপূর্ণ কাঠামোটি সংক্ষেপে বিবৃত হলো:

১. জীবনঘনিষ্ঠ জ্ঞান: অচেনা পৃথিবীতে দিশার আলো;
------------------------_---------------------------------

জীবনঘনিষ্ঠ’ জ্ঞানের অভাবে, অনাকাঙ্ক্ষিত ভাবে জীবন থেমে যায়; সম্পর্ক গুলো নষ্ট হয়ে সাহস হারা হয় এবং শক্তি নিঃশেষ হয়; চাওয়া-পাওয়া, চিন্তায়, দৃষ্টিভঙ্গিতে দৈন্যতা চেপে ধরে; পড়াশোনার সময়কাল থেকে শুরু করে জীবনের বিভিন্ন পর্যায়ে ‘সম্ভাবনার’ কি নিদারুন অপচয় হয়।
জীবনঘনিষ্ঠ শিক্ষা হলো স্বতঃস্ফূর্ত শিক্ষা, কোন বাধ্যবাধকতা নেই, প্রয়োজনের তাগিদে মানুষজন অতীত কাল থেকে পরিবেশ, সমাজ, পরিবার ও গুরু/শিক্ষকদের কাছ থেকেই এই শিক্ষা পেয়ে আসছে।

তবে বর্তমানে,
১. জীবনঘনিষ্ঠ শিক্ষা, আড়ালে চলে গেছে:
অন্যান্য আনুষাঙ্গিক কারণ ও একাডেমিক শিক্ষার চাপে পড়ে এটি প্রজন্মের কাছে এক প্রকার নাগালের বাইরে থেকে গেছে। ছেলেমেয়েরা জানতেই পারছেনা জীবনের জন্য এই শিক্ষার গুরুত্ব কতখানি!

২. সময়ের সাথে সাথে জীবনবোধের জ্ঞান সমৃদ্ধ হয়নি:
চিন্তার কাজটুকু কিছু মানুষের জিম্মায় চলে গেছে। সাধারণ মানুষের মাঝে মিনিমাম লেভেলের চিন্তা ভাবনার চর্চা না থাকার কারনে মানুষের জীবনে যে প্রতিনিয়ত নতুন কিছু না কিছু বিষয়বস্তু যুক্ত হচ্ছে সে ব্যাপারে ভালো কোন গাইডলাইন পরিষ্কার ভাবে, পূর্ববর্তীগন পরবর্তীদের জানাতে পারেন নাই অর্থাৎ যুগ অনুযায়ী জ্ঞানের ধারা সমৃদ্ধ করতে ব্যর্থ হয়েছেন।
এছাড়াও বর্তমানে শিক্ষার উৎসগুলো(পরিবার, শিক্ষক, সমাজ, পরিবেশ..)অনেক ক্ষেত্রে নষ্ট বা বিকৃত হয়ে গেছে।

এই শিক্ষার গুরুত্ব অনুধাবন করা, অন্বেষণ করা জীবনের জন্যই অপরিহার্য।

২. জীবন ব্যবস্থাপনা:
--------------------
যা মূলত জীবনঘনিষ্ঠ জ্ঞানের কাঠামোগত রূপ। এই কাঠামো যত দুর্বল হবে জীবনের ধ্বংস তত তরান্বিত হবে। এটি এমন একটি প্রক্রিয়া যা মানুষকে শক্তিশালী করে তোলে বা দুর্বল বানিয়ে দেয়।

এক নজরে ব্যাপারটি উপলব্ধি করতে উদাহরণ স্বরূপ মুরগীর জীবনের দিকে লক্ষ্য করতে পারি।

দেশি মুরগির রৌদ্রে পা ছড়িয়ে পাখা মেলে রৌদ্র স্নান করা, পা দিয়ে সারা শরীর ধুলোয় মাখামাখি, দৌড়ে গিয়ে পাখা ঝাপটানো, গাছের মগডালে বসে বিশ্রাম নেয়া, অর্থাৎ এদের নিজস্ব একটা প্রাণোচ্ছল টেকসই জীবন আছে, ভিত শক্তিশালী করে বেড়ে ওঠে, এর মাঝেই রয়েছে self-esteem, courage, habits, caring এর মত বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলোর শিক্ষা, যা ঝর-তুফান, অন্য প্রাণীর আক্রমণের মত খুব কঠিন পরিস্থিতিতেও টিকে থাকতে সাহায্য করে।

অপরদিকে ফার্মের মুরগীর জীবনটাই কেটে যায় মাংস ও ডিম উৎপাদন প্রক্রিয়ায় এবং এদের ভিতটা এতই দুর্বল যে, সামান্য বিরূপ পরিস্থিতিতে বেঁচে থাকাই দুস্কর।

অনুরূপভাবে,
আজকাল অধিকাংশ ছেলেমেয়েরা শিক্ষায়-মননে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বা অন্যের ইচ্ছা, চিন্তা বা চাহিদা অনুযায়ী বড় হচ্ছে। ফার্মিং স্টাইল। লাইফ ডেভেলপড বাই কোম্পানি। নিজস্বতা বলে কিছু থাকছে না। জীবনের বিশালতা সম্পর্কে অজ্ঞই থেকে যায়, সংকীর্ণ জ্ঞানে, সংকীর্ণ জীবন। নিজের আশপাশই বিশ্ব।

আশার কথা, এই রুগ্নতা থেকে আত্ন-উন্নয়নের(বিশেষ জ্ঞানের আলোকে মনের গভীরতর স্তরে পরিবর্তন) মাধ্যমে রিকভারি সম্ভব।

বেশকিছু বুদ্ধিবৃত্তিক ‘পার্সোনাল ডেভলপমেন্ট এরিয়া’ আছে যেমন অভ্যাস, পছন্দ, ফোকাস, ভিশন, মাইন্ডসেট, বিশ্বাস, ইমোশন ইত্যাদি ক্ষেত্রে ঠিকঠাক পরিবর্তন করতে পারলে, জীবনও ঠিকঠাক।

কিন্তু প্রকৃত ডেভেলপমেন্টে না গিয়ে অধিকাংশ ক্ষেত্রে ছেলেমেয়েরা এন্টারটেইনের মধ্যে উন্নতি খোঁজে।
যেমন প্রচুর মুভি/ টিভি দেখা, অপ্রয়োজনীয় কেনাকাটা, ঘন ঘন হ্যাং আউট, খেলাধুলায় প্রচুর সময় দেয়া, অতিরিক্ত খাওয়া দাওয়া / ফুড এডিকশন, ট্রেন্ড সহ ইত্যাদি ইত্যাদি।

কার্যত দেখা যায়, এইসব অ্যাক্টিভিটি সাময়িক, বিক্ষিপ্ত, কোন কিছুই টার্গেট ওরিয়েন্টেড না। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সময়ক্ষেপণ, বাস্তবতাকে সাময়িক ভাবে ভুলিয়ে দেয়।

মূলতঃ প্রকৃত পরিস্থিতি handle না করে এড়িয়ে গিয়ে দীর্ঘায়িত (procrastinate) করার কারণে অবস্থার কোন পরিবর্তন হয় না।
ফলে সমস্যা থেকে বেরিয়ে আসার উপায় জানতে না পারায় জীবনের মূহুর্তগুলো বিষাক্ত (toxified) হয়ে পড়ে। ধীরে ধীরে ব্যাক্তি, পরিবার, সমাজ টক্সিক হয়ে উঠে। অথচ মানবজাতির সুরক্ষায় সমাজ এবং পরিবারের গুরুত্ব যথাক্রমে কোষ ও নিউক্লিয়াস এর ন্যায়।

এতসব জটিলতায় অপরিপক্ক মানসিকতায় বেড়ে উঠা এরা পৃথিবী, এর বাসিন্দাদের, নিজের পরিবার বা এমনকি নিজেকে ধারণ করার মত যোগ্য হয়ে উঠছে না। কেন পারছেনা, সেটি খুঁজে বের করার ইচ্ছা বা ক্ষমতা দুটোই হারিয়ে ফেলছে।

তাই প্রকৃত যোগ্য হয়ে উঠতে নিম্নমানের জীবন ব্যবস্থাপনা ছেড়ে উচ্চ মানসম্পন্ন জীবন ব্যবস্থাপনার ভেতর দিয়ে যেতে জল হয়।

৩. লিভিং কালচার : যেখানে জীবন ও স্বপ্নের পরিচর্যা হয়।
-----------------------------------------------------------

এটা হলো মানুষের সারাজীবনের অর্জিত জ্ঞানের বাহ্যিক রূপ তথা মানুষের অবস্থার প্রকাশ। ভালো বা মন্দ জ্ঞানের প্রভাব পরিলক্ষিত হয়, অন্য কথায় কে কোন বিষয়ে কেয়ারিং বা কেয়ারলেস তা স্পস্ট হয়ে পড়ে।

এই কারণে, উন্নত লিভিং কালচারে সাধারণ যোগ্যতা দিয়ে হয়তো অসাধারণ কিছু করা সম্ভবপর হয়। আর পতিত লিভিং কালচারে যোগ্যতাসমূহ ঝরে গিয়ে কোলাহলে মিলিয়ে যায়।

অনুন্নত কালচারের বাসিন্দাদের সম্মিলিতভাবে পতনের অল্পস্বল্প কিছু গল্প: ও জ্ঞানীদের অসহায়ত্ব।

# অত্যন্ত আগ্রহ সহকারে প্রতি বছর প্রায় দশ হাজার কোটি স্টিক(বিড়ি ও সিগারেট) পুড়িয়ে , এদেশের আকাশে-বাতাসে বিষাক্ত নিকোটিন ছড়িয়ে দিয়ে খুব আরাম অনুভব করে।

# নিজেদের থাকার জায়গাটি পৃথিবীর সবচেয়ে নোংরা দূষিত জায়গাগুলোর কাতারে নিয়ে রেখেছে।

# গ্লোবাল টেলেন্ট কমপিটিটিভনেস ইনডেক্স ২০২১: পুরা দুনিয়ায় ১২৩ তম/ মোট দেশ ১৩৪ । শুধু মধ্য ও দক্ষিণ এশিয়ায় মোট ৯টি দেশের মধ্যে ৯ম। কার মাথা কোথায় কেউই জানে না।

# প্রচুর অশান্তি, প্রায় ১৪০০০ জন নিজেরাই নিজেদের জীবনের বাতি নিভিয়ে দিচ্ছে প্রতি বছর। ভীষণ একা।

বেশিরভাগ মানুষ, ভুল করতে করতে জীবনটারে ভচকায়ে ফেলছে। তারপরও তারা পূর্বের দিনের ন্যায় আজকের দিন শুরু করে, তেমন কোন কিছুই পরিবর্তন করে না, এরপরও আশায় থাকে সবকিছু একদিন ঠিক হয়ে যাবে। উল্টো চিন্তা।

এ অবস্থায় বেশিদিন থাকা ঠিক নয়, কেননা এতে মনুষ্যত্বের বিনাশ হয়। স্বপ্নগুলো মরে যায়।
তাই সংগত কারণেই নিম্নমানের লিভিং কালচার থেকে বেরিয়ে আসা জরুরী।

//////////////////))))))))))))))))

আর্ট অফ লিভিং:
নতুন জীবনের শুরুতে: জীবনের উদ্দেশ্য বা গন্তব্য থাকা না থাকা;

প্রত্যেকটি জীবনেরই যেহেতু আলাদা পথ রয়েছে, তাই এর একটি গন্তব্য আছে। যার কারণে বাল্যকাল থেকেই জীবনের উদ্দেশ্য বা গন্তব্য নির্ধারণে চেষ্টা থাকা আবশ্যক। গন্তব্য জানা থাকলে বিরূপ পরিস্থিতিতে সকল পথ রুদ্ধ হয়ে গেলেও বিকল্প পথ খুঁজে পাওয়া সম্ভব আর উৎসাহ উদ্দীপনারও কমতি হয় না, অর্থাৎ হতাশা গ্রাস করতে পারে না।
কিন্তু অধিকাংশ মানুষ গন্তব্য না জেনে অন্যের দেখাদেখি, জনস্রোতে নেমে পড়ে। এদের উদ্দেশ্যহীন বেতাল পদক্ষেপ দুনিয়াটাকে সমস্যার ডিপো বানিয়ে ফেলে।

অন্যদিকে জীবনের উদ্দেশ্য তথা গন্তব্যে পৌঁছতে যথেষ্ট পরিমাণ জ্ঞান ও যোগ্যতার সাথে সাথে ভুল থেকে বেঁচে থাকার সর্বোচ্চ চেষ্টা জরুরী।
এছাড়াও বহুল প্রচলিত একটি শব্দ ‘অবক্ষয়'(ধীরে ধীরে অথচ নিয়মিতভাবে ক্ষয়প্রাপ্তি) নিয়ে সকলের মাঝে প্রচুর আক্ষেপ, হা-হুতাশ, আফসোস দেখা যায়। মানব জীবনকে অস্থিতিশীল করে ধ্বংস করা ছাড়া এর(অবক্ষয়) কোন কাজ নেই।

এই সব কিছুর উর্ধ্বে নিজের স্থান করে নিতে(conquer), উন্নত জীবনধর্মী জ্ঞান, উন্নত জীবন ব্যবস্থাপনা নিশ্চিতভাবেই অত্যাবশ্যক।

এই সম্পূর্ণ বিষয়টি,
এর ‘হলিস্টিক লাইফ ম্যানেজমেন্ট' কোর্সটিতে বিস্তারিত রয়েছে।
লাইক শেয়ার কমেন্ট করে নিজের ও অন্যের জীবনের সমৃদ্ধি, সুরক্ষায় এগিয়ে যান।

Timeline photos 25/02/2022

Coming next!

Timeline photos 21/10/2021
01/06/2021

।। হলিস্টিক লাইফ ম্যানেজমেন্ট ।।

সংস্কার একটি কঠিন ব্যাপার, ইহাতে এতই আলস্য ও ভয় যে, ৯৮% মানুষ তাদের শিক্ষা ও চিন্তায় সংস্কার বা পরিবর্তন(reform & improve) না করেই, উন্নত হওয়ার স্বপ্ন বিলাসে বিভোর থাকে, কিন্তু বাস্তবতা তো ভিন্ন। তাই এই কঠিনেরে অনেক বেশি সহজ করে, সর্ব সাধারণের সুবিধার্থে fixuplife নিয়ে এলো হলিস্টিক লাইফ ম্যানেজমেন্ট।

কোর্সটি
শিখিয়ে দেয় কিভাবে কম স্ট্রেস নিয়ে, উন্নত, নিরাপদ, সহজ জীবন গঠন করা যায়; কিভাবে সময় ও সম্পদের সর্বোচ্চ ভালো বিনিয়োগ নিশ্চিত করতে হয়।
আপনার শরীর, মন, আত্না ও সামাজিক কর্মকাণ্ডের মাঝে ভারসাম্য রেখে সুস্থ পরিবেশ নিশ্চিত করা সহ বিশেষ হিলিং প্রক্রিয়ায় দেহ মনে প্রশান্তি লাভে পারদর্শী হয়।
শক্তিশালী এই প্রোগ্রাম আপনাকে আড়ম্বরপূর্ণ স্বাস্থ্যকর জীবনযাপনে অভ্যস্ত করে তোলে।
জীবনের ত্রুটি-বিচ্যুতি, ক্ষয়-ক্ষতি কমিয়ে আপনাকে নিরাপদ রেখে, সমৃদ্ধির পথে দ্রুত অগ্রসর হতে শেখায়।
জ্ঞানে রয়েছে শক্তি ও সুখের অনুভব, এই শক্তি ও সুখের নাগাল পেতে বিশেষায়িত জ্ঞানের স্রোতে যুক্ত হওয়ার সুযোগ লাভ।

☄️☄️
( হলিস্টিক লাইফ ম্যানেজমেন্ট: উন্নত জীবন তৈরি করতে বা জীবনকে অনন্য উচ্চতায় পৌঁছতে কাজ করে।)
✨✨

🚧প্রতিমাসে শুধুমাত্র দশ জন অংশগ্রহণের সুযোগ পাবেন।

বয়েস পেরিয়ে যাওয়ার আগেই অপেক্ষার ইতি টানুন🚧

জীবনের সময় এতই অল্প যে, অপচয় করার মতো সময়ই নাই।🚧
🚦100% money back guarantee.

#জীবনধর্মীশিক্ষা . #ফিক্সআপলাইফ #জীবনবোধ

21/05/2021

A powerful life changing program.
-------------------------------------------------------
|| Holistic Life Management||
This course teaches you how to heal and balance with mind, body, spirit, social well-being; make your life easier, better, less stressful, also protect from harm and save your time & money.

It also teaches you how to reduce error (wrong doing) and enhance productivity (potentiality).

Moreover this is a Powerful life changing program that ensures healthy living and more harmony in your life.

You can get opportunities to linked with abundant knowledge to get the correct form of strategies, tactics and tools.

So no more delay, Start learning for design your life right now.

🚧Only 10 people get opportunities to enroll this course each month.
Now what do you think? Make hurry!!!🚧

Want your school to be the top-listed School/college in Chittagong?

Click here to claim your Sponsored Listing.

Location

Category

Website

Address


Chittagong
4000,4100,42XX

Other Education in Chittagong (show all)
Noubahini School & College, Chattogram Noubahini School & College, Chattogram
Sailors Colony 1, CEPZ, Bandar Thana
Chittagong

Noubahini School & College, Chattogram নৌবাহিনী স্কুল ও কলেজ, ?

CHITTAGONG CANTONMENT PUBLIC COLLEGE CHITTAGONG CANTONMENT PUBLIC COLLEGE
Chittagong Cantonment , Biozid
Chittagong, 4209

ALLAH AMAaY GYAAN DAaO.....This is the most prestegious college in chittagong .....

BASE - Your BASE Lies Here BASE - Your BASE Lies Here
Chittagong, 4000

127 Momin Road, Opposite Kadam Mobarok

Innovative Learning Innovative Learning
Jamal Khan
Chittagong

Online tuition for classes 9-12 (National Curriculum). One-to-one care on Higher Mathematics & Physics.

Bandarban University Computer Science & Engineering Club Bandarban University Computer Science & Engineering Club
Chittagong

This is the official page of the Bandarban University Computer Science & Engineering Club(BUCSEC),a campus-based science organization of Bandarban University.

National University of Bangladesh Chattogram Gov College National University of Bangladesh Chattogram Gov College
Chittagong, 1990

জ্ঞানে কর্মে সৃজনে ঐতিহ্যে চট্টগ্রাম কলেজ।

Bangla &BD.Studies care. Bangla &BD.Studies care.
Panchlish
Chittagong

A Coaching For O'Level & SSC Bangla & BD.Studies/BGS

Khan Safety Academy Khan Safety Academy
Chittagong

“Teaching the world to be careful is a constructive service worthy of God’s great gift of life.

Accounting Information Points Accounting Information Points
House-04, Lane-04, A-Block, Halishahar
Chittagong

A Complete information Point for Business Studies Students

Target School Target School
Chittagong

Hi,Am here to show you just enlighteing way to be unique in your life.

EDU ECON Acumen Society EDU ECON Acumen Society
EAST DELTA UNIVERSITY
Chittagong, 4209

Providing students with a platform to develop their understanding of economic and business issues

Way To Jannah Academy Way To Jannah Academy
East Rampur, Halishahar
Chittagong

Way To Jannah Academy is an online educational institution. Our ultimate goal is to enter Jannah.